০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯, ১১ রজব ১৪৪৪
ads
`

বাবা কামাল ইউসুফের মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া চাইলেন নায়াব ইউসুফ

-

বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ ৯ ডিসেম্বর ২০২২। ২০২০ সালের এই দিনে তিনি করোনা আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। এ উপলক্ষে ফরিদপুরের মুসলিম মিশন এতিমখানায় দোয়া এবং ময়েজ মঞ্জিলের পারিবারিক কবরস্থান জিয়ারত, ফাতিহা পাঠ ও মোনাজাতের কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জাতীয়তাবাদী কৃষকদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল।


চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ১৯৪০ সালের ৩ মে ফরিদপুর জেলার এক সম্ভ্রান্ত বাঙালি জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার ইউসুফের পিতামহ ছিলেন জমিদার চৌধুরী মঈজউদ্দীন বিশ্বাস। তার বাবা ইউসুফ আলী চৌধুরী (মোহন মিয়া) ব্রিটিশ ও পাকিস্তান শাসনামলে উপমহাদেশ কাঁপানো রাজনীতিবিদ ও কৃষকপ্রিয় জমিদার ছিলেন। তার চাচা চৌধুরী আবদুল্লাহ জহিরউদ্দীন (লাল মিয়া) আইয়ুব খান সরকারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় ছিলেন এবং অন্য চাচা এনায়েত হোসেন চৌধুরী (তারা মিয়া) পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সদস্য ছিলেন।
চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ বিএনপি থেকে ১৯৭৯ সালের জাতীয় নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান তাকে বৃহত্তর ফরিদপুরের দায়িত্ব দিয়ে প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদায় জেলা উন্নয়ন সমন্বয়ক (ডিডিসি) হিসেবে নিয়োগ দেন। ১৯৮১ সালে তিনি বিচারপতি আব্দুস সাত্তার সরকারের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯১ সালে তিনি পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হন। ১৯৯৬ সালে সংসদ নির্বাচনে আবারো তিনি বিজয়ী হন। এরপর ২০০১ সালের নির্বাচনেও জয়ী হয়ে তিনি খাদ্য এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী হয়েছিলেন।


চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের মৃত্যুবার্ষিকীতে তার জন্য দোয়া করতে দেশবাসীর প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছেন তার মেয়ে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের অন্যতম শীর্ষ নেতা চৌধুরী নায়াব ইউসুফ। তিনি দৈনিক নয়া দিগন্তের মাধ্যমে সবার কাছে দোয়া চেয়ে বলেন, দেশের চলমান দুরবস্থার কথা বিবেচনা করে এবার খুব সীমিত আয়োজনে আমার বাবার মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হচ্ছে। আপনারা সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন তাকে জান্নাতবাসী করেন। সেই সাথে নায়াব ইউসুফ দেশের গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করার অনুরোধ জানান। তিনি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনে গ্রেফতার হওয়া সব নেতাকর্মীর মুক্তি দাবি করেন। যারা নিহত হয়েছেন তাদের রূহের মাগফেরাত কামনা করেন।

 


আরো সংবাদ


premium cement