১৩ আগস্ট ২০২২
`

রাজশাহীতে রেল কর্মচারীকে কুপিয়ে হত্যা

-

রাজশাহীতে স্কুলছাত্র সনি হত্যার রেশ না কাটতেই এবার রেলওয়ে কর্মচারীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার রাতে রাজশাহী নগরীর বেলদারপাড়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এলাকায় ওই রেল কর্মচারীকে কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় আরো একজন আহত হয়েছেন। তাকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত রেলওয়ে কর্মচারীর নাম সোহেল রানা। তিনি নগরীর ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের শিরোইল কলোনি এলাকার আব্দুল করিমের ছেলে। সোহেল রেলওয়েতে ওয়েম্যান পদে চাকরি করতেন। আর আহত ব্যক্তির নাম ফারুক হোসেন। তিনি হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন। তিনিও একই এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে।
পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতেই নিহত সোহেল রানার বাবা আব্দুল করিম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় মৃত সোহেল রানার সাথে থাকা ফারুককে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ।
স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, বাংলা মদ ব্যবসায়ী টগরের বাড়িতে মদ কেনা ও পান করা নিয়ে সোহেল ও ফারুকের দ্বন্দ্ব হয়। এ সময় তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। পরে ফারুক টগরের বাড়ি থেকে বের হয়ে সোহেলকে কুপিয়ে জখম করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। এ সময় ধস্তাধস্তিতে রাস্তার ওপর পড়ে গিয়ে ফারুকও আহত হন। এসময় দু’জনই মদ্যপান অবস্থায় ছিলেন। পরে স্থানীয়রা দু’জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সোহেলকে মৃত ঘোষণা করেন।
নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, কিভাবে সোহেল নিহত ও ফারুক আহত হয়েছেন তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন ফারুকই সোহেলকে ছুরিকাঘাত করেছেন। কিন্তু ফারুক বলছেন তারা গাড়ির ধাক্কায় আহত হয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।


আরো সংবাদ


premium cement