১৩ আগস্ট ২০২২
`

বগুড়ায় চাহিদার অর্ধেক বিদ্যুৎ মিলছে না ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা

-

বগুড়ার বিদ্যুতের গ্রাহকরা গত কয়েক দিন ধরে একটানা স্বাভাবিক বিদ্যুৎ না পেয়ে চরম ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। দিন দিন পরিস্থিতি খারাপের দিকেই যাচ্ছে। তারা রাস্তায় না নামলেও ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের কষ্টের কথা বলছেন।
পিডিবির আওতাধীন নেসকো লিমিটেড বগুড়া শহরের ৪টি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিন গড়ে ৮২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দরকার হলেও সেখানে গড়ে ৩২-৩৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ পাওয়া যাচ্ছে। অপর দিকে বগুড়া জেলার ১২টি উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী পল্লী বিদ্যুতের দুটি সমিতি সূত্রে জানা গেছে, ১২ উপজেলা পর্যায়ে গড়ে বিদ্যুতের চাহিদা ১৮৫ মেগাওয়াট। কিন্তু সেখানে এ মুহূর্তে সরবরাহ করা হচ্ছে গড়ে ১০০-১১০ মেগাওয়াট। এমন অবস্থায় বিদ্যুৎ অফিসগুলো এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং ও সরবরাহ করছে। কিন্তু এ ব্যাপারে পূর্বের কোনো রকম ঘোষণা নেই। ফলে গ্রাহকরা রয়েছেন অন্ধকারে। তারা এ ব্যাপারে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে লোডশেডিংয়ের অনুরোধ করেছেন। বগুড়া শহরের ভিআইপি এলাকা জলেশ^রীতলার বাসিন্দা আব্দুল ওয়াদুদ জানান, দিনরাত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গড়ে ৭- ৮ ঘণ্টা বিদ্যুৎ মিলছে। প্রিপেইড মিটার আগে রিচার্জ করা হলেও বিদ্যুৎ না পেয়ে চরম সমস্যা হচ্ছে। গত রোববারের চেয়ে গতকাল আরো লোডশেডিং বেড়েছে। দিন দিন উন্নতির চেয়ে অবনতি হচ্ছে। এভাবে মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। সরকারের এ ব্যাপারে জরুরি পদক্ষেপ দরকার। এ দিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গ্রাহকরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন। তাদের অনেক প্রতিক্রিয়া অশ্লীল ভাষায়ও প্রকাশ করা হয়েছে। সার্বিক বিষয়ে চরম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা। তাই গ্রাহকরা ফোন করেও অনেক সময় পাচ্ছেন না বিদ্যুতের কর্মীদের।
নেসকো লিমিটেড,বগুড়া বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নাফ জানান, বেশ কিছু বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র বন্ধের কারণে লোডশেডিং বেড়েছে। এটি জাতীয় সমস্যা হওয়ার কারণে আমাদের করণীয় কিছু নেই।
বগুড়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি -১ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী আব্দুল মতিন জানান, তার সমিতির পিকআওয়ারে (সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা) চাহিদা ৮০ মেগাওয়াট এবং অফ পিকআওয়ারে (দিনের বেলা) চাহিদা ৫০ মেগাওয়াট । সেখানে সরবরাহ মিলছে পিকআওয়ারে ৫০ মেগাওয়াট এবং অফ পিকআওয়ারে ৩২-৩৬ মেগাওয়াট। ফলে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং করা হচ্ছে।


আরো সংবাদ


premium cement