০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`

নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টিকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি

-

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চার ট্রাস্টিকে কারাগারে পাঠানোর পাশাপাশি চার কার্যদিবস জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন।
গতকাল বেলা ১টা ৩৫ মিনিটে আদালতে তাদের হাজির করে পুলিশ। এরপর দুদক তাদের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবেদন করেন। অপর দিকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা কারাগারে প্রথম শ্রেনীর ডিভিশন চেয়ে আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক তাদের সাত কার্যদিবসের মধ্যে এক দিন জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নির্দেশ দেন। এ ছাড়া কারাবিধি অনুযায়ী তাদের ডিভিশন দেয়ার জন্য কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্য হলেনÑ এম এ কাশেম, বেনজীর আহমেদ, রেহানা রহমান ও মোহাম্মদ শাহজাহান। গত রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় তাদের আগাম জামিনের আবেদন সরাসরি খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। একই সাথে তাদের শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করতে নির্দেশ দেন। বিচারপতি মো: নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো: ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়টির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে গত ৫ মে মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক মো: ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী।
দুদক আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল জানান, মামলার এই ঘটনার সাথে আর কারা জড়িত, কিভাবে দুর্নীতি হয়েছে এবং কিভাবে মানি লন্ডারিংয়ের ঘটনা ঘটেছে তা জানতে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি প্রার্থনা করা হয়। সেই প্রার্থনা বিবেচনায় নিয়ে আদেশপ্রাপ্তির সাত দিনের মধ্যে চারজনের প্রত্যেককে এক দিন করে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন আদালত।
মামলার আসামিরা হলেনÑ নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদ, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য এম এ কাশেম, বেনজীর আহমেদ, রেহানা রহমান, মোহাম্মদ শাহজাহান এবং আশালয় হাউজিং ডেভেলপার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন মো: হিলালী।
হাইকোর্টের আদেশ অনুসারে আগাম জামিন আবেদন খারিজের পর রোববার রাত ১১টার পর হাইকোর্ট থেকে তাদেরকে শাহবাগ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সোমবার দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার পাশাপাশি জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে দুদক। অপর দিকে আসামিপক্ষে ডিভিশন চাওয়া হয়। ডিভিশনের বিষয়ে কারাবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের আদেশ দিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।


আরো সংবাদ


premium cement