১৮ মে ২০২২, ০৪ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩
`
মোবাইল গ্রাহকদের অভিযোগ শুনতে মনিটরিং সেল গঠন

কলের স্পষ্ট শব্দ ও গতিশীল ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে আদালতের নির্দেশ

-

মোবাইল ফোনের কলের ক্ষেত্রে স্পষ্ট ও পরিষ্কার শব্দ, গতিশীল ইন্টারনেট ও স্থিতিশীল নেটওয়ার্ক সেবা নিশ্চিত করতে মোবাইল অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে রুলসহ এ আদেশ দেন। একইসাথে মোবাইল সংক্রান্ত সমস্যা ও অপারেটরের বিষয়ে অভিযোগ দ্রুত নিষ্পত্তিতে বিটিআরসির অভিযোগ সেলের কার্যক্রম তদারকি করতে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করে দিয়েছেন আদালত। কমিটিকে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক ও অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশের একজন প্রতিনিধিকে কমিটিতে রাখতে বলা হয়েছে।
আইনজীবী সাইফুর রহমান এ রিটটি দায়ের করেন। মোবাইল কলের ক্ষেত্রে স্পষ্ট ও পরিষ্কার শব্দ, গতিশীল ইন্টারনেট ও স্থিতিশীল নেটওয়ার্ক সেবা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চাওয়া হয়। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ এম মাছুম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। রুলে ইলেকট্রনিক মিডিয়া, জাতীয় দৈনিক ও টিভি চ্যানেলে দেয়া বিজ্ঞাপন অনুযায়ী, মুঠোফোনে কলের ক্ষেত্রে স্বচ্ছ ও পরিষ্কার শব্দ, গতিশীল ইন্টারনেট ও স্থিতিশীল নেটওয়ার্ক সেবা নিশ্চিতে নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ইন্টারনেট সেবা পেতে ডেটা প্যাকের জন্য মুঠোফোন অপারেটরদের নির্ধারিত মেয়াদ বাতিল করতে এবং কেনা ডেটা শেষ হওয়ার আগপর্যন্ত গ্রাহকদের তা ব্যবহারের অনুমতি দিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না, সে বিষয়েও রুলে জানতে চাওয়া হয়েছে।
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিটিআরসি, বিটিআরসির চেয়ারম্যান এবং গ্রামীণফোন লিমিটেড, রবি আজিয়াটা লিমিটেড, বাংলাদেশ ডিজিটাল কমিউনিকেশন্স লিমিটেড ও টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের পক্ষে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
এ বিষয়ে আইনজীবী এ এম মাসুম বলেন, মোবাইল ফোন অপারেটরদের সেবার মান বিশেষ করে কল ড্রপ, ভয়েস কল, ইন্টারনেট সার্ভিস, ইন্টারনেটের বিভিন্ন বান্ডিল প্যাকেজ নিয়ে গ্রাহকদের অভিযোগের সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির ইমেইল ও ফোনে গ্রাহকরা তাদের অভিযোগ দিয়ে থাকেন। অনেক ক্ষেত্রে গ্রাহকদের এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সমস্যার সমাধান করা হয়। আবার অনেক ক্ষেত্রে গ্রাহকদের অভিযোগ অস্বীকার করে মোবাইল ফোন অপারেটররা। তাই মোবাইল ফোন গ্রাহকদের অভিজ্ঞতা ও অভিযোগ শুনতে একটি মনিটরিং সেল বা কমিটি করার নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।


আরো সংবাদ


premium cement