২২ জানুয়ারি ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

সরকারি ক্রোড়পত্রের বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল ৫৬ কোটি টাকা পরিশোধের দাবি

-

সরকারি ক্রোড়পত্র প্রকাশের জন্য চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতরকে (ডিএফপি) বিজ্ঞাপন খাতের বাজেটে যথাযথ অর্থ বরাদ্দ না দেয়ায় বর্তমানে সংবাদপত্রের বিল বকেয়া পড়েছে প্রায় ৫৬ কোটি টাকা। ফলে সংবাদপত্র শিল্প বর্তমানে আর্থিক সঙ্কটে পড়েছে। বাংলাদেশ সংবাদপত্র প্রতিনিধি পরিষদের সভাপতি এস এম এ রাজ্জাক এবং মহাসচিব মো: হাবিবুল্লাহ হাবিব এক বিবৃতিতে সংবাদপত্রের বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল শিগগিরই পরিশোধের দাবি জানান। বিবৃতিতে তারা বলেন, সংবাদপত্রের সরকারি বিজ্ঞাপন হার গত ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে সাড়ে তিনগুণ বৃদ্ধি পেলেও সে হারে বাজেটে বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়নি। চলতি বাজেটে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে মাত্র ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। অথচ বিগত অর্থবছরের বিজ্ঞাপন বিল বকেয়া আছে প্রায় ৫৬ কোটি টাকা। বিবৃতিতে আরো উল্লেখ করা হয়, এই অর্থবছরের বরাদ্দকৃত অর্থ থেকে আগের বকেয়া বিল পরিশোধ না করার জন্য অর্থ মন্ত্রণালয় শর্তারোপ করার কারণে সংবাদপত্রগুলো বকেয়া বিজ্ঞাপন বিলের টাকা পাচ্ছে না। এ কারণে সংবাদপত্র শিল্প বর্তমানে চরম অর্থ সঙ্কটে পড়েছে। ফলে সংবাদপত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাংবাদিকদের বেতনভাতা পরিশোধ করতে পারছে না। এ অবস্থা আরো কিছুদিন অব্যাহত থাকলে সংবাদপত্রের সাংবাদিক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে অসন্তোষ বৃদ্ধি পাবে।
এ অবস্থায় বাংলাদেশ সংবাদপত্র প্রতিনিধি পরিষদের দাবি চলতি অর্থবছরে সরকারি ক্রোড়পত্র প্রকাশের বিজ্ঞাপন বিল পরিশোধের জন্য বাজেটে বরাদ্দকৃত ১৭ কোটি ৬৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা খরচে যে দুই তারকা চিহ্নিত করে দিয়ে বকেয়া বিল পরিশোধ না করার শর্তারোপ করেছে তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে এবং বিগত অর্থবছরের বকেয়া থাকা বিজ্ঞাপন বিলের ৫৬ কোটি টাকা অতি জরুরিভাবে বরাদ্দ করার অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে দাবি জানাচ্ছি। বিবৃতিতে বাংলাদেশ সংবাদপত্র প্রতিনিধি পরিষদের সভাপতি এস এম এ রাজ্জাক ও মহাসচিব মো: হাবিবুল্লাহ হাবিব সংবাদপত্রের এই সঙ্কটময় মুহূর্তে অর্থমন্ত্রী এবং তথ্য ও স¤প্রচারমন্ত্রীর বরাবর বিষদ ব্যাখ্যা দিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে এবং এ ব্যাপারে মন্ত্রীদ্বয়ের কাছে আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ


premium cement