২৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

ফেনীতে ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে খুনের মামলায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

-

ফেনী শহরের বারাহিপুর এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে ফেসবুক লাইভে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে কুপিয়ে হত্যা মামলার রায় দিয়েছেন আদালত। রায়ে তার স্বামী ওবায়দুল হক টুটুলের মৃত্যুদণ্ড আদেশ দেন জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা। আদালত সূত্র জানায়, গতকাল চাঞ্চল্যকর এ মামলার রায় ঘোষণা করেন জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা। রায়ে টুটুলকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আদালতে টুটুলকে স্বাভাবিক দেখা গেছে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর হাফেজ আহম্মদ, বাদিপক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু, আসামিপক্ষের আইনজীবী আবদুস সাত্তার উপস্থিত ছিলেন। পাবলিক প্রসিকিউটর হাফেজ আহম্মদ জানান, রাষ্ট্রপক্ষ টুটুলের অপরাধ প্রমাণে সক্ষম হয়েছে।
বাদিপক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু জানান, কেউ অপরাধ করে পার পাবার কোনো সুযোগ নেই। এ রায় তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। মামলার বাদি তাহমিনার পিতা সাহাবউদ্দিন মামলার রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। এ রায় দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানান তিনি।
চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি মামলার বাদি নিহতের পিতা সাহাব উদ্দিনের সাক্ষ্যগ্রহণের শুরু হয়। এই মামলায় ১৩ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়। গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর একমাত্র আসামি ওবায়দুল হক টুটুলকে অভিযুক্ত করে চার্জগঠন করা হয়। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো: ইমরান হোসেন গত ১১ নভেম্বর টুটুলকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল স্ত্রী তাহমিনাকে কুপিয়ে হত্যা করেন ওবায়দুল হক টুটুল।


আরো সংবাদ


premium cement