০২ আগস্ট ২০২১
`

গণতন্ত্রের মুক্তির সংগ্রামে বিএনপির নেতৃত্বে জাতিকে এগিয়ে আসতে হবে : আমীর খসরু

-

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া এখনো পরিপূর্ণ মুক্তি পাননি। তিনি এখন মারাত্মক অসুস্থ। সংবিধানে যেখানে সবার চিকিৎসা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে, সেখানে বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। আমাদের এমন কঠিন প্রেক্ষাপট মোকাবেলা করতে হচ্ছে যে, কোনো এক অদৃশ্য কারণে অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য মুক্তি মিলছে না। সামনের সময়গুলো যে কত কঠিন হবে তা অনুধাবন করা যায়। তবে এটা শুধু বিএনপির সমস্যা নয়। দেশের মানুষের সমস্যা। গণতন্ত্রের এই মুক্তির সংগ্রামে বিএনপির নেতৃত্বে জাতিকে এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি গত মঙ্গলবার জিয়াউর রহমানের ৪০তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয় মাঠে চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান শুধু বাংলাদেশের নেতা নয়। বিগত দিনে বিশ্বের হাতেগোনা যে কয়জন নেতা ছিলেন তিনি তাদের মধ্যে অন্যতম। জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের নেতৃত্বের কোনো প্রতিযোগিতায় আনার প্রয়োজনীয়তা নাই। কারণ তিনি দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে হানাদারদের বিরুদ্ধে প্রথমে বিদ্রোহ করেছিলেন। তিনি দেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি দেশের অভ্যন্তরে থেকে সরাসরি সম্মুখযুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন। তিনি সেক্টর কমান্ডার ও জেড ফোর্সের অধিনায়ক ছিলেন। তারপরও তিনি সম্মুখ যুদ্ধ করেছেন। তিনি ছিলেন ওয়ার হিরো। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান জেনারেল ছিলেন। কিন্তু জনগণের সমর্থন নিয়ে তিনি রাজনীতিবিদ হয়েছেন। তিনি সংস্কারক ছিলেন। তিনি রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক সংস্কারক ছিলেন। বিশ্বের কয়েকজন সংস্কারকের মধ্যে তিনি ছিলেন অন্যতম। তিনি শুধু গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তা নয়। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, বরকত উল্লাহ বুলু, বরেণ্য শিক্ষাবিদ আবদুল লতিফ মাসুম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা: শাহাদত হোসেন, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূইয়া জুয়েল।
চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচ এম রাশেদ খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের দফতর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সি. সহসভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, সহসভাপতি আসাদুজ্জামান দিদার, মোহাম্মদ ইউসুফ, কাজী খাইরুল আলম দিপু, হারুন আল রশিদ, মাঈনুদ্দিন রাশেদ, এন আই চৌধুরী মাসুম, হারুনুর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, যুগ্ম সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ভূঁইয়া, সহসাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন, হাসান মাহমুদ, আব্দুল মান্নান আলমগীর, মনির হোসেন, শাহাদাত হোসেন সোহাগ, জাকির হোসেন, আব্দুল মান্নান, মো: হাসান, মফিজ উদ্দিন সুমন, মো: আলমগীর, সহসাংগঠনিক সম্পাদক মো: ইসহাক খান, মো: লিটন, মো: সেলিম, সাইফুল আলম দিপু, ইকবাল হোসেন রুবেল, রবিউল ইসলাম, শাহাজাহান বাদশা, সম্পাদকম লীর সদস্য লুৎফর রহমান জুয়েল, নুর হোসেন, সহসম্পাদক ম লীর সদস্য মো: জাহিদুল ইসলাম, আকতার হোসেন, মো: পারভেজ, মো: বাকের হোসেন, জাকির হোসেন মিশু, সাজ্জাদ হোসেন খাঁনসহ থানা ও ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ।

 



আরো সংবাদ