২৮ জুলাই ২০২১
`

উত্তরায় গৃহশ্রমিক নির্যাতন : শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

-

রাজধানীর উত্তরার ৯ নম্বর সেক্টরে নিশা নামে এক গৃহকর্মীকে নির্যাতনের ঘটনায় মানববন্ধন হয়েছে। এ সময় ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটন করে দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি এমন ঘটনা বন্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার জন্য আহ্বান জানায় গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক। গতকাল শনিবার গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্কের সদস্যসচিব নাজমা ইয়াসমীন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানানো হয়।
সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে গৃহকর্মে নিযুক্ত শ্রমিকের ওপর নির্যাতন, হত্যা ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো ঘটনা উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে গেছে। গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক মনে করছে, সম্প্রতি সরকার ঘোষিত ‘গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি-২০১৫’ বাস্তবায়ন না হওয়ায় দেশে একের পর এক অনাকাক্সিক্ষত গৃহশ্রমিকের মৃত্যু ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। তাই গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক অবিলম্বে নীতি বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে।
জানা গেছে, গত শুক্রবার দুপুরে জাতীয় জরুরি সেবা ট্রিপল নাইনে ফোন পেয়ে ওই গৃহকর্মীকে উদ্ধার করে পুলিশ।
জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বলেন, শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় একজন ঢাকার উত্তরার ৯ নম্বর সেক্টরের ৭ সি সড়কের ২০ নম্বর বাড়ি থেকে ফোন করে জানান, বাড়িটিতে এক নারী গৃহকর্মীকে প্রচণ্ড মারধর ও গরম পানি ছুড়ে আহত করে একটি রুমে আটকে রেখেছে। ফোনদাতা জানান, তিনি প্রতিবেশী এবং আটক গৃহকর্মীর আর্তনাদ ও কান্নার আওয়াজ শুনেছেন। ৯৯৯ থেকে তাৎক্ষণিক উত্তরা পশ্চিম থানায় জানিয়ে এ বিষয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়। সংবাদ পেয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার একটি দল অবিলম্বে ঘটনাস্থলে যায়।
তিনি আরো বলেন, পরে উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই কাঞ্চন ৯৯৯কে জানান, তারা নির্যাতনের শিকার গুরুতর আহত গৃহকর্মী নিশাকে (১৮) উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠিয়েছে। আর নির্যাতনের অভিযোগে গৃহকর্তার মেয়ে তানজিনা রহমানকে (২৪) গ্রেফতার করে থানায় আনা হয়।



আরো সংবাদ