০৫ মার্চ ২০২১
`
উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাইকে হত্যা

আশুগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সির ভাই জামাল মুন্সি (৫০) নিহতের ঘটনায় চরচারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকারসহ ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।
গত শনিবার রাতে নিহত জামাল মুন্সির বড় ভাই জাহাঙ্গীর মুন্সি বাদি হয়ে আশুগঞ্জ থানায় এই হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেনÑ আবু সহিদ, সেলিম মিয়া, জিয়াউদ্দিন খন্দকার, আবদু মিয়া, জাকির মিয়া (পিচ্ছি জাকির), পলাশ মিয়া, শফিকুল ইসলাম, তজুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান, মোহাম্মদ আজিজ, রফিকুল খন্দকার, জুবায়ের ইসলাম, সাদ্দাম মিয়া, নাছির মিয়া, দিলু মিয়া, মাসুদ মিয়া, মাহবুবুর রহমান, মনা মিয়া ওরফে রমজান, পাবেল মিয়া, কাউছার মিয়া, খোকন মিয়া, রনি মিয়া, মোহাম্মদ রাব্বি, বাদল মিয়া, সোহেল মিয়া, সুমন মিয়া ও ইকরান। তাদের সবার বাড়ি চরচারতলা এলাকায়। এ ছাড়া আরো ২০-২৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।
মামলার এজাহারে বলা হয়, গত শুক্রবার রাত ১টার দিকে উপজেলার চরচারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকারের যোগসাজশে পরিকল্পিতভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সিকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার বাড়িতে হামলা করে বাড়ির প্রধান ফটকে ভাঙচুর করতে তাকে। এ সময় মামলার বাদি জাহাঙ্গীর মুন্সি ও জামাল মুন্সি তাদের বাধা দিলে আবু সহিদ, শফিকুল ইসলাম, জাকির হোসেন ও মো: আজিজ নিহত জামাল মুন্সিকে ঝাপটে ধরে। পলাশ মিয়া তার হাতে থাকা বল্লম দিয়ে জামাল মুন্সির বুকে আঘাত করে। অন্য আসামিরা আরো কয়েকজনকে পিটিয়ে আহত করে। পরে জামাল মুন্সিকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
আশুগঞ্জ থানার ওসি জাবেদ মাহমুদ জানান, জামাল মুন্সি হত্যার ঘটনায় ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা হয়েছে। আসামিদের মধ্যে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।



আরো সংবাদ