০৭ মার্চ ২০২১
`

গৃহকর্ত্রী বৃদ্ধাকে নির্মম নির্যাতন করে স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা নিয়ে গৃহকর্মী পলাতক

-

রাজধানীর মালিবাগে গৃহকর্মীর নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বিলকিস বেগম (৭০) নামে এক গৃহকর্ত্রী। গৃহকর্মী রেখা বৃদ্ধাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে বাসা থেকে টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করেছে।
পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে সিসি টিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে, গৃহকর্মী রেখা বিলকিস বেগমের ওপর বর্বর নির্যাতন চালিয়েছে। শাহজাহানপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবার অভিযোগ করেছে। ওই গৃহকর্মীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
বিলকিস বেগমের স্বজনরা পুলিশকে জানান, তিনি (বিলকিস বেগম) মালিবাগের একটি বাসায় থাকেন। তিন বছর ধরে কিডনিসহ নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। বাসায় কেউ না থাকায় গৃহকর্মী রেখা তার ওপর এমন নির্যাতন চালিয়েছে। পরে বাসা থেকে স্বর্ণালঙ্কার, টাকা ও অন্যান্য জিনিসপত্র লুট করে পালিয়েছে।
সিসি টিভির ফুটেজ দেখে পুলিশ জানায়, শুরুতে দেখা যায় বিলকিস বেগম খাটের ওপর শুয়ে আছেন। পাশে বসে সেবা করছে রেখা নামের এক গৃহকর্মী। শুরুতে বোঝার উপায় ছিল না। একটু পরেই রেখার প্রকৃত রূপ দেখা যায়।
বিলকিস বেগমকে বাথরুমে নিয়ে যায় গৃহকর্মী রেখা। পরে সেখানে নিয়ে খুলে ফেলা হয় তার শরীরের সব কাপড়। শীতের সকালে ওই বৃদ্ধার গায়ে বেশি করে পানি ঢালে সে। পরে জোর করে কোনোরকম বাথরুম থেকে বেরিয়ে আসেন বিলকিস বেগম। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয় গৃহকর্মী রেখা। যে লাঠিতে ভর করে তিনি (বিলকিস বেগম) হাঁটাহাঁটি করেন সেই লাঠি দিয়ে রেখা তাকে মারধর করে। বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে একপর্যায়ে হাতের কাছে যা পেয়েছে তা দিয়েই চালিয়েছে নির্যাতন। আলমারির চাবির জন্য তার বুকের ওপর চেপে বসে সে। একসময় বঁটি হাতেও তেড়ে আসে। তার গলা থেকে স্বর্ণের চেইন খুলে নিজের গলায় পরে রেখা। হাত থেকে বালা খুলে নেয়। তারপর চাবির সন্ধান পায়। কিন্তু খুলতে না পেরে রক্তাক্ত বৃদ্ধাকে টেনে নিয়ে বাধ্য করে আলমারি খুলে দিতে। পরে গৃহকর্মী রেখা আলমারি খুলে স্বর্ণ ও টাকা হাতিয়ে নেয়। এরপর টিভি এবং অন্যান্য মালামাল নিয়ে বাসা থেকে চলে যায়। পরে ওই বৃদ্ধার স্বজনরা এসে ঘটনাটি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেন। বৃদ্ধাকে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।



আরো সংবাদ