২৭ মে ২০২০
বিকাশ অ্যাপে ‘করোনা ইনফো’ চালু

করোনা সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন সরকারি সংস্থার উদ্যোগ

-

বিকাশের মতো বহুল ব্যবহৃত মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে করোনাভাইরাস সম্পর্কে সাধারণকে জানাতে এবং এর প্রতিরোধে সহায়তা করতে উদ্যোগ নিয়েছে এটুআইসহ সরকারের কয়েকটি সংস্থা। এ জন্য তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য ও করণীয় বিষয়ে সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করতে বিকাশ অ্যাপের মেনুতে যোগ হয়েছে করোনা ইনফো।
বিকাশ অ্যাপ ব্যবহারকারী গ্রাহকগণ এখন বিকাশ অ্যাপের হোমস্ক্রিনের ওপরের মেনুবারে পাচ্ছেন করোনা ইনফো লোগোটি। কোথাও না গিয়ে ঘরে বসে বিদ্যুৎ বিল প্রদান, মোবাইল রিচার্জ, সেন্ডমানি, অ্যাডমানি, পেমেন্টের মতো সেবাগুলোর কারণে অ্যাপটি এখন প্রতিদিন ব্যবহারের অ্যাপ। ফলে গ্রাহকেরদের কাছে করোনা তথ্য প্রচারে এবং তাদের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহে বিকাশ অ্যাপে এই সংযোজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
এই লোগোতে ক্লিক করলেই সর্বশেষ আপডেট, হটলাইন নম্বর, করোনাভাইরাসের ঝুঁকি নির্ণয় করুন, সম্ভাব্য করোনা আক্রান্তের তথ্য দিন এবং স্বেচ্ছাসেবক হোন শিরোনামে সাব মেনু পাবেন গ্রাহক।
সর্বশেষ আপডেট মেনুতে আইইডিসিআরের সর্বশেষ আক্রান্ত, হোম কোয়ারেন্টিনের সংখ্যা, মৃতের সংখ্যা প্রভৃতি তথ্য পাবেন গ্রাহক। একই সাথে মাস্ক ব্যবহারের নিয়ম, সহজে জীবাণুনাশক বানানোর নিয়ম, পূর্ণবয়স্ক এবং শিশুদের মানসিক চাপ মোকাবেলা, ভাইরাসটির মৌলিক তথ্য, ভ্রান্ত ধারণা ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক তার জবাব এমন নানান প্রয়োজনীয় তথ্য।
হটলাইন নম্বরে ক্লিক করলে গ্রাহক পেয়ে যাবেন ৩৩৩।১০৬৫৫।১৬২৬৩ এই তিনটি নম্বর গ্রাহক তার প্রয়োজনীয় সেবা পেতে এসব নম্বরে কল করতে পারবেন। আপনি কতখানি করোনাভাইরাসের ঝুঁকিতে আছেনÑ সেই তথ্যও যাচাই করা যাবে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি নির্ণয় মেনু থেকে। আপনার দেয়া তথ্য যেমন জ্বর আছে কি না, শ্বাসকষ্ট আছে কি না, বয়স কত, বিদেশে ভ্রমণ করেছেন কি না এমন আরো কতগুলো প্রশ্নের উত্তর দিয়ে আপনি আপনার বা পরিজনের করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সম্ভাবনা যাচাই করে নিতে পারবেন খুব সহজেই।
সম্ভাব্য করোনা আক্রান্তের তথ্য দিন
নিজের, পরিবারের বা আশপাশের সম্ভাব্য করোনা আক্রান্তের তথ্যও সম্ভাব্য করোনা আক্রান্তের তথ্য দিন মেনু থেকেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেয়ার সুযোগ পাবেন গ্রাহক। তথ্য দিতে যারা ডাক্তার তারা ডাক্তার মেনুতে এবং অন্যরা সচেতন প্রতিবেশী মেনুতে ক্লিক করবেন। পরে সম্ভাব্য আক্রান্ত ব্যক্তির নাম, বাবার নাম, লিঙ্গ, আনুমানিক বয়স, বিদেশ ফেরত হলে দেশে ফেরার তারিখ, যে দেশে থেকে ফিরেছেন তার তথ্য, বিভাগ, জেলা, উপজেলাসহ বিস্তারিত ঠিকানা এবং মোবাইল নম্বর দিয়ে তথ্য সাবমিট সম্পন্ন করা যাবে।
স্বেচ্ছাসেবক হোন
জরুরি এই পরিস্থিতে যে চিকিৎসকরা অনলাইনে সেবা দিতে ইচ্ছুক তারা অনলাইন প্রশিক্ষণ নিতে স্বেচ্ছাসেবক হোন মেনু থেকেই সরকারের মুক্তপাঠ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অনলাইন প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন। যারা ইতোমধ্যে প্রশিক্ষন সম্পন্ন করেছেন তারা অনলাইনে সেবা দিতে এখান থেকেই নিবন্ধনও করতে পারবেন। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ