২৯ মার্চ ২০২০

ব্যাংকে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে

-

ব্যাংকে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক (বিইএফটিএন) আজ ২৬ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে সরকারঘোষিত সাধারণ ছুটির মধ্যে আগামী ১ ও ২ এপ্রিল এটি চালু থাকবে। একই সাথে আজ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত (ছুটিকালীন) বাংলাদেশ অটোমেটেড চেক প্রসেসিং সিস্টেম (বিএসিপিএস) ও রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্টের (আরটিজিএস) সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। গতকাল এ বিষয়ে সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
গতকাল বুধবার দেশের সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠানো প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে, বৈশ্বিক মহামারীতে রূপ নেয়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। তাই ছুটিকালীন সীমিত আকারে ব্যাংকিং ব্যবস্থা (নগদ উত্তোলন ও জমা) চালু রাখার নির্দেশনা রয়েছে। তবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাদি প্রদানসহ সব ধরনের লেনদেন সম্পন্ন করার সুবিধার্থে বিইএফটিএন আগামী ১ ও ২ এপ্রিল চালু থাকবে।
বিইএফটিএনের মাধ্যমে যেসব কাজ করা যায় সেগুলো হলো নিজের ব্যাংক হিসাব থেকে অন্য যেকোনো ব্যাংক গ্রাহকের হিসাবে টাকা পাঠানো, যেকোনো প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাসিক বেতন-ভাতা পরিশোধ করা, ডিভিডেন্ট-ইন্টারেস্ট প্রভৃৃতি পাঠানো, গ্রাহকের ব্যাংক হিসাব থেকে বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস বিল, ঋণের কিস্তি, বীমা প্রিমিয়াম জমা দেয়া। বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে বিএসিপিএস, আরটিজিএস ও বিইএফটিএন বন্ধ থাকলেও ছুটির সময়ে সার্বক্ষণিক ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (এনপিএসবি) চালু রাখতে হবে। ফলে সহজে ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড ও ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে যেকোনো ব্যাংকের এটিএম, পস ও ইন্টারনেট ব্যাংকিং সেবা পাওয়া সম্ভব। এ ছাড়া এনপিএসবি চালু থাকলে যেকোনো ব্যাংক হিসাব থেকে অন্য ব্যাংকের গ্রাহকের হিসাবে মুহূর্তেই টাকা পাঠানো যায়। এ ছাড়া এর মাধ্যমে পণ্য কিংবা সব সেবার মূল্য পরিশোধ করার সুযোগ আছে।


আরো সংবাদ