১১ এপ্রিল ২০২০

ফেনীতে প্রশাসনের নির্দেশনা উপেক্ষা করে শপিংমল বিপণিবিতান খোলা

-

ফেনীতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে প্রশাসনের নির্দেশনা না মেনেই খোলা হয়েছে মার্কেট ও বিপণিবিতান। এ ছাড়া সড়কের বিভিন্ন স্থানে দোকানপাটও খোলা রাখতে দেখা গেছে।

গতকাল বুধবার সরেজমিন দেখা গেছে, সকাল থেকেই খোলা রয়েছে শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়কের গ্রিন টাওয়ার, কলেজ রোডের শহীদ হোসেন উদ্দিন বিপণিবিতান ও মিজান রোডের তমিজিয়া শপিং কমপ্লেক্স। এ তিনটি মার্কেটের সম্মুখে অন্যান্য দিনের মতো যাত্রীরা রিকশার জন্য অপেক্ষমাণ রয়েছেন। দোকানপাটে লোকসমাগমও রয়েছে। এ ছাড়া শহরের বিভিন্ন সড়কে দোকানপাট খোলা থাকতে দেখা গেছে।

এ প্রসঙ্গে   সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোছা: সুমনী আক্তার জানিয়েছেন, বিষয়টি তদারকি তথা সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে দুপুরের পর থেকে সেনাবাহিনী টহলে নামছে। এ দিকে অন্য দিনের তুলনায় ফাঁকা রয়েছে পুরো শহর। ব্যস্ততম ট্রাংক রোড ও মহিপাল অনেকটা জনমানবশূন্য।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে কাঁচাবাজার ও মুদিদোকান ছাড়া সবধরনের দোকানপাট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা এ সংক্রান্ত জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করেন।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে তিনি উল্লেখ করেছিলেন, ‘পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ফেনী সদর উপজেলায় সব ধরনের হাটবাজার, চায়ের দোকান, স্যালুন, শপিংমল বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। শুধুমাত্র ওষুধের দোকান ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। কাঁচাবাজার এবং মুদিদোকান প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। অতীব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হবেন না। রাস্তায় কিংবা বাজারে ঘোরাফেরা করা যাবে না। আদেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ অপরাপর উপজেলাগুলোতেও নিজ নিজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ একই আদেশ জারি করেছেন।

 


আরো সংবাদ