৩০ মার্চ ২০২০

ঘরে বন্দী ফেরদৌস

-

করোনাভাইরাসে সচেতনতা স্বরূপ ঘরে বন্দী রয়েছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌস। দেশের করোনাভাইরাসের খবরে জানা গেল ১৩ মার্চ থেকে তিনি নিজেকে গৃহবন্দী করে রেখেছেন। জানিয়েছেন মা, স্ত্রী, সন্তানসহ পরিবারের সবাইকে নিয়ে রাজধানীর বনানী ডিওএইচএসের বাসায় অবস্থান করছেন।
তবে প্রতি মুহূর্তে তিনি দেশবাসীর জন্য খুব উদ্বেগ উৎকণ্ঠার মধ্যে সময় পার করছেন। দেশের সবার প্রতি বিনীত অনুরোধ করে সাংবাদিকদের ফেরদৌস বলেন, সত্যি বলতে কি এই মুহূর্তে শুধু আমাদের দেশ নয়, সারা বিশ্ব এক বিশাল মহামারীতে আক্রান্ত। করোনাভাইরাসের মতো শক্তিশালী এই মহামারীর বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ করতে হবে। আর সেই যুদ্ধটা করতে হবে নিজেদের ঘরের মধ্যে থেকেই। খুব ইমার্জেন্সি কোনো কিছু দরকার না হলে আমরা কেউ কোথাও যাবো না। ঘরের মধ্যে থেকেই নিজের পরিবারকে নিরাপদে রাখতে হবে। পাশাপাশি নিরাপদে রাখতে হবে অন্য পরিবারকেও।
তিনি বলেন, আমি বিশেষ করে তরুণদের বলব, তারা ঘরের মধ্যে থাকতে চায় না। কিন্তু নিজের পরিবারের সবার কথা ভেবে এখন তাদের ঘরেই থাকা উচিত। এভাবে আমরা প্রত্যেকে যদি নিজের অবস্থানে সচেতন হই তাহলেই করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে জয়ী হতে পারব। যেখানে উন্নত বিশ্বের দেশগুলো করোনার কারণে হিমশিম খাচ্ছে প্রতিনিয়ত, সেখানে আমাদের জন্য এটা আরো অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং। আমার মা প্রায়ই বলেন, বাবা নামাজ পড়ো পাঁচ ওয়াক্ত। এখন অনুধাবন করছি তিনি কেন এ কথা বলেন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা যে ঈমানের অঙ্গ, পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়লে পাঁচবার অজু করা হয়। নিজেও পরিষ্কার থাকা যায়। আর এখন তো সবাই বলছেন কিছুক্ষণ পর পর সাবান দিয়ে হাত ধুতে। যাতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত না হতে হয়।
আসুন আমরা এখন নিজেদের পরিবারকে সময় দেই, নিজেরা সচেতন থাকি, দেশকে, দেশের মানুষকে সুরক্ষা করি। সবাই সম্মিলিতভাবে এই মুহূর্তে দেশের আইন কঠোরভাবে মেনে চলি।


আরো সংবাদ