০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মুক্তি পাচ্ছে সাইমন অভিনীত ছবি ‘লাইভ’ সিনেমা

মুক্তি পাচ্ছে সাইমন অভিনীত ছবি ‘লাইভ’ সিনেমা - ছবি : নয়া দিগন্ত

দীর্ঘ চার বছর পর মুক্তি পাচ্ছে সাইমন অভিনীত ছবি ‘লাইভ’ সিনেমা। সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত এ ছবিটি ৯ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে। শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত সাইকো থ্রিলার ঘরনায় নির্মিত এ ছবিতে আরো অভিনয় করেছেন আদর আজাদ, খাইরুল বাশার, শিবা শানু, আমিন সরকার ও সাবেরী আলম প্রমুখ।

মুক্তি উপলক্ষে বুধবার রাজধানীর ইস্কাটনে একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এতে সম্মেলনে সাইমন বলেন, আমার এ মুহূর্তে আটটি ছবি সেন্সর হয়ে আছে। এর মধ্যে এটি অন্যতম ছবি, যা নিয়ে আমি খুবই আশাবাদী। তিনি বলেন, ‘এ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর অনেকেই আমাকে এতে অভিনয় করতে মানা করেছিলেন। তাদের যুক্তি ছিল, এ ছবিতে হিরোইজম দেখানোর জায়গা নেই। কিন্তু আমি বলেছিলাম, আমি হিরোইজম চাই না, অভিনয়ের জায়গা আছে কি না সেটা চাই। আমি কৃতজ্ঞ পরিচালক আমাকে অভিনয়টা করার সুযোগ দিয়েছেন।’

সাইমন বলেন, গত বছর শাপলা মিডিয়ার তিনটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হই। তার মধ্যে একটি ছিল এটি। এতে টানা ১৬ মিনিট অভিনয় করেছিলাম। যা সিনেমায় রাখা হয়েছে। কতটা মনোযোগ দিয়ে কাজ করলে আমার মতো একজন অভিনেতা এটা একবারেই করতে পারে! পুরো গল্পটাই ছিল মনোযোগ দেয়ার মতো। টিজারে রহস্যের যে ছায়া পাওয়া গেছে, তাতে মনে হয় পুরো গল্পটা একবার দেখতে বসলে দর্শক শেষ পর্যন্ত দেখবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তারসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। নিপুণ বলেন, বাংলাদেশের সিনেমার আবার সুবাতাস বইছে। আগেই আমি ‘লাইভ’ সিনেমার গল্প শুনেছি। বাস্তব কাহিনী থেকে করা হয়েছে এই সিনেমা। আশা করি সবার ভালো লাগবে। সবাই হলে এসে সিনেমাটি দেখবেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ‘লাইভ’ সিনেমায় অভিনয় করতে মাহিয়া মাহিকে শর্ত দেয়া হয়েছিল তিনি ঘুমাতে পারবেন না। সেই শর্তই না কি ঠিকঠাকভাবে পালন করেছেন মাহি। দুদিন না ঘুমিয়ে কাজ করেছেন তিনি। শুধু মাহিই যে ‘লাইভ’ সিনেমায় সর্বোচ্চটা দিয়ে অভিনয় করেছেন তা কিন্তু নয়। এর সঙ্গে আরও যারা আছেন তারাও কাজ করেছেন দারুণভাবে। সাইমন সাদিক ও আদর আজাদ তাদের মধ্যে অন্যতম। আর সে বিষয়টি স্বীকার করে খোদ পরিচালক শামীম আহমেদ রনিও অভিনয়শিল্পীদের প্রশংসা করেছেন।

তিনি বলেন, মাহিকে এ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগে শর্ত দেওয়া ছিল ঘুমানো যাবে না, সে কিন্তু দুদিন না ঘুমিয়ে কাজ করেছে। কারণ না ঘুমানোর ফলে মানুষের চেহারা যেরকম হয়, সেরকম দরকার ছিল আমাদের। মাহি তার সর্বোচ্চ ডেডিকেশন দিয়েছে। আমি বলবো মাহি, সাইমন ও আদর তাদের সর্বোচ্চটা দিয়েছে এই ছবিতে।

পরিচালক জানান, মাহি, সাইমন ও আদর তিনজনের সঙ্গে তার এটা প্রথম কাজ। তারা তিনজনই সর্বোচ্চ দিয়ে ছবিতে অভিনয় করেছেন।
শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে মাহি বলেন, শুটিংয়ের জায়গাটাকে পলিথিন দিয়ে এমনভাবে আইসোলেটেড করা হয়েছিল, যাতে আমরা নিঃশ্বাস নিতে না পারি। বেশ কষ্ট করে আমরা কাজটা করেছি। দুদিন ঠিকঠাক ঘুমাতে পারি নাই। টানা শুটিং করেছি। একটু ফাঁক পেলে যে যার মতো করে ফ্লোরে ঘুমিয়েছি। আমি এর আগে কোনো ছবিতে এত পরিশ্রম করিনি। অভিনেত্রী আরও বলেন, যখন আমরা ক্যামেরার সামনে দাঁড়াই, একটা সংলাপ বলি- তখনই বুঝি সিনেমাটা কেমন হবে। ওই জায়গা থেকে বলবো, খুব ভালো ছবি ‘লাইভ’। আমার মনে হয় না এরকম কাজ আমি আগে করছি। ছবিটা দেখলে দর্শকদের ভালো লাগবে।

‘লাইভ’ সিনেমায় সবাই ভালো কাজ করেছেন উল্লেখ করে মাহি বলেন, যখন নতুন কোনো সিনেমার শুটিং করতে যাই, তখনই বুঝতে পারি কাজটা আসলে কতটা ভালো হবে। ‘লাইভ’ সিনেমায় শুটিং করতে গিয়ে বুঝেছি অসাধারণ হয়েছে কাজ। এখানে সবাই অনেক ভালো অভিনয় করেছেন। আমি আর সাইমন আলোচনা করতাম যে, এই লাইভ সিনেমা দিয়ে জীবনে বড় একটা টার্ন আসবে।

চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, সিনেমার জোয়ার শুরু হয়েছে। এখন ভালো ছবি মুক্তি পেলে এ জোয়ার ধরে রাখা যাবে। লাইভ ছবির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি শুনেছি ছবিটা খুবই ভালো হয়েছে। শিল্পীদের ডেডিকেশনের কথাও শুনেছি। শিল্পীরাও যে চলচ্চিত্র নির্মাণের অংশ তার প্রমাণ এই ছবি। দর্শক দলে দলে হলে গেলেই তাদের এই পরিশ্রম সার্থক হবে।

 

 


আরো সংবাদ


premium cement