০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ৬ জিলহজ ১৪৪৩
`

এক সেলফিতেই ভণ্ডুল হয়ে যায় আরিয়ানকে অপহরণ করে ১৮ কোটি মুক্তিপণের পরিকল্পনা

এক সেলফিতেই ভণ্ডুল হয়ে যায় আরিয়ানকে অপহরণ করে ১৮ কোটি মুক্তিপণের পরিকল্পনা - ছবি সংগৃহীত

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ-তনয় আরিয়ান খানকে কি অপহরণ করা হয়েছিল? ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের দাপুটে মন্ত্রী তথা প্রবীণ এনসিপি নেতা নবাব মালিকের নবতম অভিযোগ এমনই। রোববার সকালে সংবাদ সম্মেলন করে নবাব অভিযোগ করেন, ‘আরিয়ান প্রমোদতরীর টিকিট কেনেননি। প্রতীক গাবা ও আমির ফার্নিচারওয়ালাই আরিয়ানকে ওখানে ডেকে আনেন।’ তার পরই নবাব বলেন, ‘‘আমি স্পষ্ট বলতে চাই, এটা একটা অপহরণ ও মুক্তিপণের ঘটনা।’’

বিস্ফোরক অভিযোগ করে নবাব বলেন, ‘‘বিজেপি নেতা মোহিত কম্বোজ ফাঁদ পেতেছিলেন। সেই পরিকল্পনামাফিক আরিয়ানকে সেখানে ডেকে আনা হয়। তার পর অপহরণ করে ২৫ কোটি টাকা (রুপি) মুক্তিপণ আদায়ের পালা। ১৮ কোটি টাকায় চুক্তি চূড়ান্ত হয়। তার মধ্যে ৫০ লক্ষ টাকা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু একটি সেলফি সব গোলমাল করে দিলো।’’

পর্যবেক্ষকদের অনুমান, গোসাভির সাথে আরিয়ানের সেলফির দিকে ইঙ্গিত করছেন নবাব। গোটা ষড়যন্ত্রের মূল চক্রী হিসেবে নবাব বিজেপি নেতা মোহিত কম্বোজের নাম করেন। যে মোহিত শনিবার এনসিপি নেতা ঘনিষ্ঠ জনৈক সুনীল পাটিলকে মূলচক্রী হিসেবে দাবি করেছিলেন।

অন্য দিকে নবাবের অভিযোগের পাল্টা মন্তব্য এসেছে কেন্দ্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (এনসিবি) তরফেও। নবাব যে ভাবে মাদক কাণ্ডকে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনা হিসেবে বর্ণনা করছেন, তার কোনও প্রমাণ দেখাতে পারবেন কি? এনসিবি আধিকারিকদের একাংশ এই কথা বলছেন। এনসিবি-র কর্মকর্তাদের একটি অংশের প্রশ্ন, যে অভিযোগ প্রকাশ্যে করছেন নবাব, তা নিয়ে কেন তিনি আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছেন না?
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা


আরো সংবাদ


premium cement
নাগরপুরে বন্যার্তদের মাঝে জামায়াতের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ বিজিবি-র‌্যাবের সোর্সকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা মাদক কারবারিদের ইন্দোনেশিয়ায় ইশারা ভাষায় হাফেজ হচ্ছে তারা পদ্মা পাড়ি দিতে এখনো ভোগান্তি, মোটরসাইকেল পার করতে বিড়ম্বনা গরিবের আমানত কোরবানির পশুর চামড়া নষ্ট করা যাবে না : হেফাজত পদ্মা সেতুর সুফল : যানবাহনের চাপ নেই ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে আড়াইহাজারে হাত-পা বাঁধা নারীর লাশ উদ্ধার সীতাকুণ্ডে অগ্নিকাণ্ডের জন্য মালিকপক্ষ দায়ী ভারত সরকারের আদেশকে ‘স্বেচ্ছাচারিতা’ বলে আদালতে গেল টুইটার সিংড়ায় ট্রাক্টরের চাকায় প্রাণ গেল শিশুর শিক্ষা শিক্ষাঙ্গন শিক্ষকতা ও ছাত্ররাজনীতি

সকল