২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

বনানীতেই পরীর নতুন বাসা!

বনানীতেই পরীর নতুন বাসা! - ছবি : সংগৃহীত

গত বেশ কয়েক মাস ধরেই অভিনেত্রী পরীমণি খবরের শিরোনাম হচ্ছেন বৃত্তের বাইরে গিয়ে। অর্থাৎ শোবিজ অঙ্গনের বাইরের কর্মকাণ্ডের জন্য তিনি টক অব দ্যা কান্ট্রি। এই ধরনের কর্মকাণ্ডে পরীমণি নামটি সবচেয়ে বেশি সংবাদের শিরোনামে উঠেছে গত ৪ আগষ্ট। ওই দিন বাসায় র‌্যাব অভিযানের পর আটক করা হয়েছিল পরীমণিকে। তারপর ২৬ দিন কাশিমপুর কারাগারে আটক থাকার পর ১ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়ে বাসায় ফিরেছেন তিনি।

বাসায় ফিরেই তিনি হাতে পান বাড়ি ছাড়ার নোটিশ। শুরু হয় নতুন বাসা খোঁজার পালা। এরমধ্যেই ২০ সেপ্টেম্বর আসে তার বাসা ছাড়ার খবর। দেশের বেশিরভাগ সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, নতুন ফ্ল্যাটে উঠেছেন পরীমণি। সংবাদমাধ্যমগুলোর দাবি, ‘নতুন’ ইন্টেরিয়রে বেশ কিছু ছবি পরী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছেন এদিন। সেখানে লাল জামার সঙ্গে মিলিয়ে লাল জুতায় নিজ ঘরে দেখা যায় এ নায়িকাকে। ঝুটিবাঁধা চুলে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখায় তাকে। মূলত, এমন ছবির একটাই বার্তা বহন করে, বাসা বদল করেছেন পরী। মূলত সেই সূত্রেই খবরটি হয়।

কিন্তু পরীমণির নতুন বাসাটি আসলে কোথায়? জবাবে পরীর চতুর জবাব, ‘ঢাকাতেই আছি।’ আবারও সেই একই গানের প্রতিধ্বনি শোনালো, ‘আমি আগের ঠিকানায় আছি...’। অথচ অনেকেই উৎসাহী, পরীমণি নতুন বাসা নিলেন কোন এলাকায়!

অবশ্য বাসা পাল্টালে তো ঠিকানা লুকানোরই কথা। তাই তার কাছ থেকে এমন চতুর জবাব আসবে, সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু অনুসন্ধানে তার ‘নতুন বাসা’র একটা ঠিকানা পাওয়া গেলো বটে! নিশ্চিত হওয়া গেলো, পরী রাজধানীর বনানীতেই আছেন। তবে ঠিকানার বিষয়টি অস্পষ্ট।

তথ্য-প্রমাণ ঘাঁটলে মিলে যায় আরো কিছু সন্দেহ। এমনকি বাসার ঠিকানাটাও। লাল জুতো-জামা পরে আনন্দমুখে প্রকাশ করা সেই ‘নতুন বাসা’র আসবাবই তার বড় প্রমাণ। এমনকি পর্দার আড়ালের সাদা খোপ-খোপ জানালাটাও স্পষ্ট। যে দৃশ্যগুলো পাওয়া গেছে পরীমণির পুরনো অনেক ছবি আর ভিডিওতেও! যেমন গত জুলাই মাসের ৭ তারিখে পরী তার প্রিয় পোষ্যকে কোলে নিয়ে ওই সবুজ সোফাটিতে ঘুমিয়ে ছিলেন। নতুন বাসার ছবিতেও স্পষ্ট দেখা গেছে সেই সোফাটি। হতেই পারে, নতুন ফ্ল্যাটে পুরনো প্রিয় সোফাটি নিয়ে গেছেন পরী। কিন্তু এক বছর পেছনের একটি ভিডিওতে গেলে খটকা লাগবে আরও। ২০২০ সালের ২ মে সেই ভিডিওটি নিজে তৈরি করে পোস্ট করেছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা হিসেবে। যে ভিডিওতে পরী নিজের ঘরের সাদা খোপ-খোপ জানালার ফ্রেম গলে ক্যামেরার চোখে তুলে এনেছেন কৃষ্ণচূড়া ফুল। নিয়েছেন অন্দরের সোফা, গিটার আর পোষা পাখি সিমির ছবিও। যদিও ‘নতুন’ বাসার পর্দা, জানালা, সোফা, গিটার- একই অবস্থানে থাকলেও ‘নতুন বাসা’র ছবিটিতে নেই পাখিটি। তা-ই নয়, পুরনো অনেক ছবি ও ভিডিওতে পরীমণিকে পাওয়া গেলো ‘নতুন বাসা’র ইন্টেরিয়রে!

বিষয়টি কেমন গোলমেলে! স্পষ্ট হতে চাইলে পরী বললেন, ‘দেখুন, আমি আর আমার বাসা নিয়ে কোনো গোলমাল চাই না। আমি যেখানে আছি নিরিবিলি ও নিরাপদে থাকতে চাই। সামনেই নতুন চ্যালেঞ্জ ওস্তাদের (গিয়াস উদ্দিন সেলিম) নতুন ছবির রাবেয়া চরিত্রটি নিয়ে। আমি আপাতত রাবেয়াতে ডুবে আছি। এবং এটাও বলে রাখি, নতুন বা পুরনো বাসা নিয়ে আমি কিন্তু রিসেন্টলি কোথাও কোনো স্টেটমেন্ট দিইনি। সো এ বিষয়ে আমাকে জ্বালাবেন না।’

তাও ঠিক, পরীমণি তার ‘নতুন বাসা’র সেই ভাইরাল পোস্টের ক্যাপশনে লিখেছিলেন জ্যামাইকান সংগীতশিল্পী ও গীতিকবি বব মার্লের উক্তি, ‘যে জীবনযাপন করছো, তা ভালোবাসো। যেভাবে জীবনযাপন করতে ভালোবাসো, সেভাবে বাঁচো।’

 



আরো সংবাদ