০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ১০ রজব ১৪৪৪
ads
`

মিরসরাইয়ে দাঁড়িয়ে থাকা পিকআপের পেছনে বাসের ধাক্কা, নিহত ৩

দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও পিকআপ - ছবি : নয়া দিগন্ত

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে দাঁড়িয়ে থাকা পিকআপের পেছনে বাসের ধাক্কায় তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরো দু’জন আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) পাঠানো হয়েছে।

শনিবার ভোরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিনকী আস্তানা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন পিকআপচালক মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার ভদ্রাসন এলাকার আব্দুর রব বেপারির ছেলে মো: খোরশেদ আলম (৩৮), পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি থানার বলদিয়া এলাকার মো: হাসান (৪২) ও বরিশাল জেলার বানারিপাড়া থানার বিশারকান্দি এলাকার মোহাম্মদ হায়দার আলীর ছেলে মো: সোহেল (৩৮)। আর আহতরা হলেন আরিফ (৩০) ও মো. মিজানুর রহমান মিজান (৩৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার ভোরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিনকী আস্তানা এলাকায় সড়কের পাশে দাঁড়ানো ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী একটি পিকআপকে এনা পরিবহনের একটি বাস পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে পিকআপচালক ও পিকআপে থাকা লোকজন গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক খোরশেদ আলম ও মোহাম্মদ হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেল নামে আরেকজন মারা যান।

নিহত সোহেলের আত্মীয় জহিরুল ইসলাম জানান, তারা ঢাকা থেকে পিকআপযোগে চট্টগ্রামে একটি জাহাজের মেরামত কাজে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে মিরসরাইয়ের চিনকী আস্তানা এলাকায় রাস্তার পাশে দাড়ানো অবস্থায় পিকআপটিকে পেছন থেকে একটি বাস ধাক্কা দেয়। এতে পিকআপে থাকা পাঁচজনের মধ্যে তিনজন যান। আহত দুজনের অবস্থাও ভালো আশঙ্কাজনক বলেও জানান তিনি।

মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক তন্ময় জামশেদ আলম বলেন, দুর্ঘটনায় হতাহত পাঁচজনকে শনিবার ভোরে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। তার মধ্যে দু’জন হাসপাতালে নিয়ে আসার আগে মারা যায়। অন্য তিনজনের শারীরিক অবস্থা ভালো না হওয়ায় চমেকে রেফার করা হয়েছে।

জোরারগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলমগীর বলেন, শনিবার ভোরে মহাসড়কের চিনকী আস্তানা এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা পিকআপকে পেছন দিক থেকে এনা পরিবহনের একটি বাস ধাক্কা দিলে পিকআপচালক ও পিকআপে থাকা চারজন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দু’জন মারা যায়। এছাড়া আরো একজন চমেকে মারা গেছেন।

তিনি জানান, দুজনের লাশ, দুর্ঘটনায় কবলিত বাস ও পিকআপ থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এখনো নিহতদের স্বজনরা থানায় এসে পৌঁছায়নি। তারা আসলে মামলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


আরো সংবাদ


premium cement