০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

নাগরিকত্ব ও নিরাপত্তা পেলে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরে যাবে : ইউএনএইচসিআর হাইকমিশনার

কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প। - ছবি : এএফপি

জাতিসঙ্ঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপো গ্রান্ডি জানিয়েছেন, মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা তাদের নাগরিক অধিকার ফিরে পেতে চায়। যদি তাদের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দেয়া হয় এবং তাদের নিরাপত্তার গ্যারান্টি, চলাফেরার স্বাধীনতা, চাকরির সুযোগ এবং লেখাপড়ার অধিকার দেয়া হয় তবে তারা তাদের দেশে ফিরে যেতে চায়।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে অনিশ্চিত জীবনযাপন করছে। রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যাটাকে আরো গুরুত্ব সহকারে
দেখা উচিত। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরত পাঠাতে মিয়ানমার সরকারের সাথে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা জোরদার করা।

তিন দিনের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে সোমবার এক মিডিয়া ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা জানান।

তিনি রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন।

ফিলিপো গ্রান্ডি রোববার সারাদিন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিদর্শনকালে রোহিঙ্গা শিশুদের সাথে কথা বলেন। শিশুদের লার্নিং সেন্টারে রোহিঙ্গা শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের তাদের শরণার্থী জীবন কিভাবে কাটে তার অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন।

পরে তিনি রোহিঙ্গা ধর্মীয় ইমাম, শিক্ষক ও কমিউনিটি লিডারদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় কমিউনিটি লিডাররা রোহিঙ্গাদের স্বদেশে প্রত্যাবাসনের বিষয় নিয়ে কথা বলেন।

ফিলিপো গ্রান্ডি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তা ব্যবস্থা, রোহিঙ্গা শরণার্থী ব্যবস্থাপনা এবং এ বিষয়ে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা, আন্তর্জাতিক সহায়তা, হোস্ট কমিউনিটির জন্য করণীয়সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জাতিসঙ্ঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তা, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন।

ফিলিপো গ্রান্ডি গত শনিবার পাঁচ দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন।


আরো সংবাদ


premium cement