০৮ মে ২০২১
`

নোয়াখালীতে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে স্বামী কারাগারে

নোয়াখালীতে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে স্বামী কারাগারে - ছবি : সংগৃহীত

নোয়াখালীর সেনবাগে যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রীকে মারধর ও শ্বাসরোধে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে স্বামী আবুল হোসেনকে (৪৫) কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

অভিযুক্ত আবুল হোসেন উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড দক্ষিণ-পশ্চিম ছাতারপাইয়া গ্রামের আকরাম উদ্দিন বেপারী বাড়ির মৃত আবদুল আজিজের ছেলে।

বুধবার দুপুরে অভিযুক্ত স্বামীকে স্ত্রীর মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল বাতেন মৃধা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মঙ্গলবার সকালে ভুক্তভোগী আয়েশা সেনবাগ থানায় মামলা করে। পরে স্ত্রীর ওই মামলার দুপুরে স্বামীকে আটক করে সেনবাগ থানা পুলিশ।

ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১ নম্বর ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পশ্চিম ছাতারপাইয়া গ্রামের আকরাম উদ্দিন বেপারী বাড়ির মৃত আবদুল আজিজের ছেলে আবুল হোসেনের সাথে ২০০৫ সালের ৭ নভেম্বর একই গ্রামের তনু সর্দার বাড়ির মো: খোরশেদ আলমের মেয়ে আয়েশা আক্তারের (২৮) পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। দুই ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে সুখেই সংসার চলছিল আয়েশার। কিন্তু আয়েশার অজান্তেই গত ২৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় বিয়ে করেন স্বামী আবুল হোসেন। এরপর থেকে শুরু হয় আয়েশা ও তার তিন সন্তানের ওপর স্বামীর নির্যাতন। যৌতুকের টাকার জন্য আয়েশাকে কয়েক দফায় মারধর করে স্বামী। কিছু দিন আগে দ্বিতীয় স্ত্রীকে বিদায় করতে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকার প্রয়োজন দেখিয়ে শ্বশুর বাড়ির লোকজন ও স্ত্রীকে চাপ দেয় আবুল হোসেন।

স্বামী আবুল হোসেনের দাবি অনুযায়ী যৌতুকের টাকা এনে দিতে পারেননি স্ত্রী আয়েশা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত সোমবার সন্ধ্যায় আয়শাকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালায়। তার চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে রাতে সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে মঙ্গলবার সকালে নির্যাতিতা স্ত্রী আয়েশা সেনবাগ থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেন।



আরো সংবাদ