২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
`

আশুগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই খুন, ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আশুগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই খুন, ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা - নয়া দিগন্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সির ভাই মোহাম্মদ জামাল মুন্সি (৫০) প্রতিপক্ষের হামলায় নিহতের ঘটনায় চরচারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকারসহ ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিহত জামাল মুন্সি উপজেলার চরচারতলা গ্রামের ফজলুল হক মুন্সির ছেলে ও আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হানিফ মুন্সির ছোট ভাই।

শনিবার দিবাগত রাতে নিহত জামাল মুন্সির বড় ভাই জাহাঙ্গির মুন্সি আশুগঞ্জ থানায় এই হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আসামিরা হলেন আবু সহিদ, সেলিম মিয়া, জিয়াউদ্দিন খন্দকার, আবদু মিয়া, জাকির মিয়া (পিচ্ছি জাকির), পলাশ মিয়া, শফিকুল ইসলাম, তাজুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান, মো: আজিজ, রফিকুল খন্দকার, জুবায়ের ইসলাম, সাদ্দাম মিয়া, নাছির মিয়া, দিলু মিয়া, মাসুদ মিয়া, মাহবুবুর রহমান, মনা মিয়া ওরফে রমজান, পাবেল মিয়া, কাউছার মিয়া, খোকন মিয়া, রনি মিয়া, মো: রাব্বি, বাদল মিয়া, সোহেল মিয়া, সুমন মিয়া ও ইকরান। অভিযুক্ত সকলের বাড়ি চরচারতলা এলাকায়। এ ছাড়া আরো ২০ থেকে ২৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ির প্রধান ফটকে ভাংচুর চালানোর সময় জাহাঙ্গির মুন্সি ও জামাল মুন্সি হামলাকারীদের বাধা দিলে বল্লম দিয়ে জামাল মুন্সির বুকে আঘাত করে। পরে জামাল মুন্সিকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে নিহত জামাল মুন্সির ভাই ও মামলার বাদি জাহাঙ্গির মুন্সি জানান, ‘কোনো কারণ ছাড়াই আমার ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে আবু শহিদ, সেলিম, আবদু, জিয়া খন্দকার, শফিক, দিলুর নেতৃত্বে আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। আমার ভাই জামাল মুন্সি তাদের হামলায় বাধা দিলে তাকে হত্যা করে হামলাকারীরা। আমি এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’

এ ব্যাপারে চরচারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন খন্দকার বলেন, ‘দ্বন্দ্ব ও হত্যাকাণ্ডের সাথে আমার দূরতম কোনো সম্পর্ক নেই। ঘটনার খবর শুনে আমি সাথে সাথে আশুগঞ্জ থানাকে অবহিত করি। আশা করি সংশ্লিষ্ট প্রশাসন সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের ব্যবস্থা করবেন।’

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: জাবেদ মাহমুদ জানান, নিহত জামাল মুন্সির বড় ভাই জাহাঙ্গির মুন্সি ২৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ইতোমধ্যেই এজাহার নামীয় পাঁচজনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বাকিদের আটক করার জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।



আরো সংবাদ


মৃত্যু কাম্য নয়, তবে কারাগারে অসুস্থ হয়ে মারা গেলে কিছু করার নেই : হাসিনা খুলনায় লেখক মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয়ায় যুবক গ্রেফতার ৩০ মার্চ থেকে খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, যেভাবে ক্লাস হবে শামীমা বেগম কি আর কখনো ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ফিরে পাবেন? মান্দায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত একসাথে দুই বোনের সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলেছিল প্রেমিক কারওয়ান বাজারে হাসিনা মার্কেটে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৮ ইউনিট সিরিয়ায় বিমান হামলা আমেরিকার সঙ্ঘবদ্ধ সন্ত্রাসবাদের নতুন ধাপ : ইরান রাজশাহীতে ১ চিকিৎসক ও ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ উড়ছে ম্যানসিটি জামায়াত আমীরের শোক

সকল