০২ জুন ২০২০

গাড়িতে তোলার আগেই মারা গেলেন করোনা উপসর্গ থাকা রোগী

গাড়িতে তোলার আগেই মারা গেলেন করোনা উপসর্গ থাকা রোগী - নয়া দিগন্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর স্বাস্থ্য কমপেক্সে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও কাশি নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসা এক যুবক (২০) মারা গেছে। ওই যুবক আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে চিকিৎসা নিতে আসে। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করে অবস্থা অবনতি দেখে তাকে ভর্তি না করে দ্রুত ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। কিন্তু গাড়িতে তোলার আগেই টেবিলে বসা থাকা অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে যুবকটি। এ সময় চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালসহ সর্বত্র উপজেলায় করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ওই যুবক পার্শ্ববর্তী মুরাদনগর উপজেলার বলিঘর গ্রামের বাসিন্দা।

নবীনগর স্বাস্থ্য কমপেক্সের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডা. মোশরাত ফারখান্দা জেবিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, যুবকটি করোনায় আক্রান্ত ছিলো কি না আমরা এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। তবে করোনার যাবতীয় উপসর্গই তার মাঝে দেখেছি। ওই যুবকটিকে ঢাকায় রেফার করা হয়েছিল, বাইরে একটি টেবিলে বসা ছিল অ্যাম্বুলেন্সে উঠার জন্য। কিন্তু গাড়িতে তোলার আগেই সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মারা যায়। তার সব কিছু নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। যে ডাক্তার তাকে চিকিৎসা দিয়েছেন তাকে আলাদা রুমে রাখা হয়েছে।

নবীনগর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বলেন, মুরাদনগরের ইউএনওকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। তারা অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে এলে লাশ বুঝিয়ে দেয়া হবে।

সন্ধ্যা পর্যন্ত লাশটি নবীনগর হাসপাতালে ছিল, তবে সন্ধ্যার পর মুরাদনগর থানার পুলিশ লাশটি নিতে একটি অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে এসেছে বলে জানা গেছে।


আরো সংবাদ