০৬ এপ্রিল ২০২০

ছাগলনাইয়ায় খোঁজ নেই ১৯৭ প্রবাসীর

ছাগলনাইয়ায় খোঁজ নেই ১৯৭ প্রবাসীর - সংগৃহীত

প্রবাসী অধ্যুষিত ফেনীর ছাগলনাইয়ায় খোঁজ নেই ১৯৭ প্রবাসীর। কিছুতেই কিছু প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে অবস্থান নিশ্চিত করা যাচ্ছে না বলে জানাগেছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইনে অবস্থান নিশ্চিত করতে দিন-রাত সমানতালে কাজ করেও ঝুঁকিমুক্ত থাকা নিশ্চিত করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

জানাগেছে, পুলিশের তথ্য অনুযায়ী প্রবাসী অধ্যুষিত ছাগলনাইয়া উপজেলায় ৪৮৫ জন প্রবাসী এলাকায় প্রবেশ করেছেন। গতকাল রোববার পর্যন্ত ১০৪জনকে প্রশাসনের নজরধারিতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের একটি অংশ প্রশাসনের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে লোকালয়ে বের হচ্ছে এমন অভিযোগ রয়েছে। আবার ১৮৭ জন প্রবাসীর কোন খোঁজ নেই পুলিশ প্রশাসনের কাছে। ১৪ দিন অতিবাহিত হওয়ায় ১৯৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে অবকাশ দেয়া হয়েছে।

ছাগলনাইয়া উপজেলার বেশিরভাগ কর্মক্ষম মানুষ প্রবাসে থাকায় অনেকে করোনাভাইস আক্রান্ত ইতালি, স্পেন, জার্মানী, সৌদিআরব, কুয়েত, কাতার, চিনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নিজের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে দেশে চলে আসেন। গত সপ্তাহেও প্রকাশ্যে ওই প্রবাসী উপজেলার হাট-বাজারে অবাধে ঘুরাফেরা করেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন

সরকারের ঘোষণা ও প্রশাসনের অভিযানে প্রবাসীদের প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা বন্ধ হলেও সন্ধ্যা নামার পরপরই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীরা বের হয়ে লোকালয়ে চলে আসায় বিষয়টি প্রশাসনকে ভাবিয়ে তুলছে ।

হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা ও জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্ঠির লক্ষে উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ডের জন্য একজন পুলিশ অফিসার, স্থানীয় মেম্বার, মসজিদের ঈমাম, একজন শিক্ষক, গ্রামপুলিশ নিয়ে পর্যবেক্ষণ কমিটি গঠন করে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এর বাহিরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া তাহের, এ্যাসিল্যান্ড নাহিদা আক্তার তানিয়ার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এ ব্যাপারে ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল জানান, প্রবাসীদের ঘরে অবস্থান নিশ্চিত করে হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে প্রশাসনকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। আল্লাহর রহমতে আমরা এই বিপদ কাটিয়ে উঠব , তিনি এই বিপদের দিনে উপজেলাবাসীর সহযোগিতা ও সহমির্মতা কামনা করেছেন ।


আরো সংবাদ