০৯ এপ্রিল ২০২০

পটিয়ায় ওরসে সন্ত্রাসীদের হামলা, নিহত ১

-

চট্টগ্রামের পটিয়ায় ওরস উপলক্ষে আয়োজিত মেলায় সন্ত্রাসীদের হামলায় একজন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। রোববার গভীর রাতে উপজেলার কোলাগাঁও ১ নম্বর ওয়াডের্র গরীব উল্লাহ্ শাহ মাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য মধু।

তিনি জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ১০ ফেব্রুয়ারি ওরস শুরু হয়। ১১ ফ্রেব্রুয়ারি ওরস শেষ হয়। ওরস উপলক্ষে আয়োজিত মেলায় ভাসমান বিভিন্ন দোকান বসে। নিহত জামাল ও সুজনসহ বেশ কয়েকজন মেলায় কাঠের তৈরী ফার্নিচারের দোকান দেয়। মেলা শেষ হলেও কিছু ফার্নিচার অবিক্রিত থাকায় তিনি দোকান তুলে নেননি।

তিনি আরও জানান, রোববার গভীর রাতে বেশ কিছু সন্ত্রাসী তাদের দুজনের ওপর হামলা করে। ফার্নিচার বিক্রয়ের টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে বেধড়ক মারধর শুরু করেন। এতে একজন নিহত হন ও অপর জন গুরুতর আহত হন। টাকা ও অবিক্রিত বেশ কিছু ফার্নিচার লুট করে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।


নিহত জামাল উদ্দিন নরসিংদীর বেলাবো ভটেশ্বর মেম্বার বাড়ীর শরাফত আলীর ছেলে। ৪ ছেলে মেয়ের মধ্যে সবার বড় তিনি। স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে তার। এই ঘটনায় অপর এক ফার্নিচার ব্যবসায়ী সুজনকে (৪২) গুরুতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম ম্যাডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতের ভাতিজা বেক্সিমকো ফার্মাসিটিউক্যালসের বিক্রয় প্রতিনিধি আলমগীর হোসেন বলেন, আমার চাচা ফার্নিচার ব্যবসায়ী ছিলেন। অপর ফার্নিচার ব্যবসায়ী আহত সুজন একই এলাকার মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ১৭ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পূর্ব কোলাগাঁওয়ের  নজির আলীর ছেলে মাহবুব (৪২) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে।

কালারপোল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক কায়ছার হামিদ বলেন, ওরস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত মেলায় নিহত জামালের বেশ কিছু ফার্নিচার অবিক্রিত রয়ে যায়। এ জন্য মেলা শেষ হয়ে গেলেও দোকান ওঠাননি। এ অবস্থায় রাতে চার-পাচঁজন অর্থ ও ফার্নিচার লুটের জন্য তাদের ওপর হামলা করে। এ সময় তারা ফার্নিচার রক্ষার জন্য বাধা দিলে তাদেরকে বেধড়ক মারপিট করে। এতে একজন নিহত ও অপরজন গুরুতর আহত হন।


কায়ছার হামিদ বলেন, অভিযান চালিয়ে একটি পরিত্যাক্ত ঘর থেকে তাৎক্ষণিকভাবে ছিনিয়ে নেয়া ফার্নিচার উদ্ধার করা হয়েছে। মাহবুব নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
পটিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মো: বোরহান উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত অবশিষ্টদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


আরো সংবাদ