০৬ মে ২০২১
`

ওসি মোয়াজ্জেমের কারাদণ্ডে নুসরাতের মায়ের সন্তুষ্টি

ওসি মোয়াজ্জেমের শাস্তিতে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন নিহত নুসরাতের মা - ফাইল ছবি

ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির জবানবন্দী ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে সোনাগাজী মডেল থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে আট বছরের কারাদণ্ড ও ১৫ লাখ টাকা জরিমানার রায় দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল।

এ রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন নুসরাতের মা শিরিনা আখতার। একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন।

শিরিনা আখতার বলেন, ‘ওসি মোয়াজ্জেম সহযোগিতা তো দূরের কথা; বরং ভিড়িওটি ছড়িয়ে দিয়ে আরো ক্ষতি করেছেন। আমি এই রায়ে সন্তুষ্ট। প্রধানমন্ত্রীকে আমার ধন্যবাদ। বিচার বিভাগ এবং মিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞ।’

পুলিশের বিরুদ্ধে রায়ে আপনি নিরাপত্তা আশঙ্কায় ভুগছেন কি-না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ নিয়ে আশঙ্কা নেই। কারণ সব পুলিশই তো আর মোয়াজ্জেমের মতো খারাপ নয়। যেমন সব হুজুরই তো সিরাজ উদদৌলার মতো লম্পট নয়।’

তবে তিনি নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন। সেই সাথে দাবি জানিয়েছেন মামলার প্রধান আসামি সিরাজ উদদৌলাকে যেন দ্রুত ফাঁসিতে ঝুলানো হয়।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস-শামস জগলুল হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। বাংলাদেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার প্রথম রায় এটি।

মাদরাসা অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনেছিলেন নুসরাত। নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই মামলায় নুসরাতের বক্তব্য গ্রহণের সময় তা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ ওঠে ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে।

এর জের অধ্যক্ষ সিরাজের নির্দেশে ধরে গত ৬ এপ্রিল পরীক্ষা দিতে গেলে নুসরাতকে পার্শ্ববর্তী একটি ভবনের ছাদে ডেকে নিয়ে গায়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় কয়েকজন। ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নুসরাত মারা যান। হত্যা মামলায় ১৬ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

অন্যদিকে গত ১৫ এপ্রিল মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আবেদন করেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। আদালত তার জবানবন্দি নিয়ে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ এর ২৬, ২৯ ও ৩১ ধারায় করা অভিযোগটি পিটিশন মামলা হিসেবে গ্রহণ করেন। পরে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন আদালত।

গত ২০ নভেম্বর রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ২৮ নভেম্বর দিন ধার্য করেন বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আস-শামস জগলুল হোসেন। এ মামলায় ১২ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন।



আরো সংবাদ


পশ্চিমবঙ্গে বন্ধ লোকাল ট্রেন, মল, রেস্তোরাঁ, বার মোদি বিরোধিতায় এখন জাতীয় মুখ মমতা, তৃণমূল সুপ্রিমোর স্তুতি কংগ্রেস নেতার সিসিইউতে যেমন আছেন খালেদা জিয়া ভারতের বাইরে হতে পারে আইপিএলের বাকি ম্যাচ, ৩টি বিকল্প ভেন্যু বিজেপির তারকা প্রার্থীদের 'নগরের নটী' বললেন তথাগত, বিতর্ক তুঙ্গে দুটি কিডনি নষ্ট, বাঁচতে চায় জসীম উদ্দীন নেতানিয়াহুর ব্যর্থতায় ইসরাইলে সরকার গঠনে মনোনয়ন পেলেন লাপিদ শিক্ষক নিবন্ধন, উত্তীর্ণদের নিয়োগে সুপারিশের নির্দেশ ভালো-মন্দের পার্থক্য বোঝা খুব গুরুত্বপূর্ণ : মিশা সওদাগর ইসরাইলের আয়ু খুব শিগগিরই ফুরিয়ে যাবে : সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ ট্রাকচাপায় শাবি শিক্ষার্থী নিহত

সকল

দূরপাল্লার বাসের অনুমতি না দিলে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়বে (১০১১৮)আসামে মাওলানা আজমলের চমক (৮৭৯৯)গৃহকর্মীকে টানা ১ বছর ধর্ষণ : অভিযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্র গ্রেফতার (৮৫২৪)বন্ধ হতে পারে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্স (৮৪৫৩)বৃহস্পতিবার থেকে চলবে বাস, মানতে হবে যেসব নির্দেশনা (৬১৪৩)প্রথমবারের মতো হাজরে আসওয়াদ পাথরের ছবি উন্মোচন করল সৌদি (৫৮৫৪)করোনায় বিপর্যস্ত মোদীর আসন বারাণসী, ক্ষোভে ফুটছে মানুষ (৪৮৫৮)১৫ গুণ বেশি ভয়ঙ্কর! আতঙ্ক ছড়াচ্ছে অন্ধ্রের নয়া করোনা স্ট্রেন (৪৬৫৫)রামমন্দিরের শহরে পঞ্চায়েত ভোটে ধরাশায়ী বিজেপি, খারাপ ফল বারাণসীতেও (৪৬০৯)কেবল টুইটার নয়, এ বারে কাজের সুযোগ হারালেন কঙ্গনা (৪৫২২)