০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

ঝালকাঠিতে লাশ নিয়ে বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঝালকাঠিতে লাশ নিয়ে বিচারের দাবিতে মানববন্ধন - ছবি : নয়া দিগন্ত

ঝালকাঠির কাঠালিয়া প্রেসক্লাবের সামনে রাকিবুল হত্যার বিচারের দাবিতে লাশ নিয়ে অবস্থান ও মানবন্ধন করেছে তার স্বজনরা।

শনিবার সকালে কাঠালিয়া প্রেসক্লাবের সামনে এ অবস্থান ও মানববন্ধন পালিত হয়। এ সময় তারা হত্যার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে নিহত রাকিবুলের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হাঁসি বেগম, পিতা মো: শফি হাওলাদার, মা লিলি বেগম, ছেলে মো: সাকিবুল ইসলাম, বড় ভাই মো: তরিকুল ইসলাম, বোন সুলতানা বেগম ও ভাই মো: আরিফ অন্য আত্বীয়-স্বজনসহ মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, ইউপি সদস্য ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত অভিযোগে নিহতের ছেলে সাকিবুল ইসলাম জানান, ‘গত শনিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আমার পৈত্রিক সম্পত্তিতে জোরপূর্বক সন্ত্রাসীরা আমন ধানের চারা রোপণ করার চেষ্টা করলে আমরা তাতে বাধা দিলে পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠি নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায় দক্ষিণ চেচরী গ্রামের শহিদুল ইসলাম শহিদ, ইব্রাহিম হোসেন তপু, নজরুল ইসলাম হাওলাদার, মিজান হাওলাদার, ডলি বেগম, মামুন হাওলাদারসহ আরো অনেকে। এ সময় আমার পিতা রাকিবুল ইসলাম, দাদা শফি উদ্দিন ও চাচা তরিকুলসহ অন্যরা গুরুতর আহত হয়। আহতদের প্রথমে আমুয়া হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে আমার পিতা রাকিবুলের অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানে ছয় দিন চিকিৎসাধীন থাকার পরে গতকাল (২ সেপ্টেম্বর) সকালে তার মৃত্যু হয়।’

সাকিবুল ইসলাম আরো জানান, ‘আমার পিতা মারা যাওয়ায় আমাদের সংসারটি এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। আমি একমাত্র সন্তান, আমি লেখা পড়া করছি। আমার মা অন্তস্বত্ত্বা থাকায় বর্তমানে তিনিও অসুস্থ। আমার পিতাকে হত্যার ফলে আমার লেখাপড়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এছাড়া গর্ভবর্তী মা যেকোনো সময় মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পারেন। আমরা অবস্থান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ ন্যাক্কারজনক হত্যা ও হামলার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

কাঠালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) এইচ এম শাহীন জানান, এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। মামলার এজাহারভুক্ত আসামি উপজেলা দক্ষিন চেঁচরী গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে মো: নান্না মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ আগস্ট বিকেলে উপজেলার দক্ষিণ চেঁচরী গ্রামের ষাটকুড়ার মোড় এলাকায় বিরোধীয় জমিতে আমন ধানের চারা রোপণ করা নিয়ে সংঘর্ষে বাবা-ছেলেসহ দু’পক্ষের অন্তত পাঁচজন গুরুতর আহত হয়।


আরো সংবাদ


premium cement

সকল