৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরে মহরমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : ডিআইজি আখতারুজ্জামান

ওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে আলোচনা করছেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি এস এম আখতারুজ্জামান - ছবি : নয়া দিগন্ত

বরগুনায় জেলা ছাত্রলীগের ওপর পুলিশের লাঠিপেটার ঘটনায় নির্ধারিত সময়েই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে। তারপর ওই পুলিশ কর্মকর্তা মহররম আলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি এস এম আখতারুজ্জামান।

বুধবার ছাত্রলীগের লাঠিপেটার ঘটনায় পুলিশের ভূমিকার বিষয়ে সার্বিক খোঁজ খবর নিতে বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি এস এম আখতারুজ্জামান বরগুনায় আসেন। এরপর আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে আলোচনা শেষে বরগুনা সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ডিআইজি আখতারুজ্জামান বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে কথা বলেছি। এ বিষয়ে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে। পুলিশ কর্মকর্তা মহররম আলীকে চট্টগ্রামে বদলি করে নেয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরগুনায় এমন কর্মকাণ্ডে সাধারণ মানুষের কাছে পুলিশের অবস্থান কী- এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, একটি ঘটনা দিয়ে পুলিশকে বিচার করা যায় না। আমরা ভিডিও ফুটেজ দেখে দেখে যেসব পুলিশ সদস্য আগ্রাসী ছিল তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেব। ইতোমধ্যে ঘটনার সাথে জড়িত পাঁচ সদস্যকে বদলি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৫ আগস্ট দুপুর ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকীর আলোচনা সভা শেষে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কমপ্লেক্সে ফুল দিতে যান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল কবির রেজা ও সাধারণ সম্পাদক তৌশিকুর রহমান ইমরান। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ফেরার সময় শিল্পকলা একাডেমির সামনে পৌঁছালে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত গ্রুপের সদস্যরা তাদের ওপর হামলা চালান। এতে দু’গ্রুপের নেতাকর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে আহত হন ছাত্রলীগের শতাধিক কর্মী।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার আলোচিত এএসপি মহররম আলীকে প্রত্যাহার করে বরিশাল ডিআইজির কার্যালয়ে নেয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাকে চট্টগ্রাম রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে। অপরদিকে বিকেলে সংঘর্ষের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদ। এছাড়া মহরম আলীর বরখাস্তের দাবিতে রাত ৮টায় বিক্ষোভ মিছিল করে জেলা আওয়ামী লীগ ও তাদের অঙ্গসংগঠন। পরে পুলিশ কর্মকর্তা মহররম আলীর কুশপুতুল দাহ করা হয়।

উল্লেখ্য যে, দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা শহরের সিরাজ উদ্দীন টাউন হল মিলনায়তনে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। পরে ২৪ জুলাই রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেয়। এতে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়। এরপর থেকেই নতুন কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বরগুনা শহরে পদবঞ্চিতরা প্রতিবাদ জানাতে থাকে।


আরো সংবাদ


premium cement
বিএনপির দুর্নীতি-দুঃশাসন বিদেশীদের কাছে তুলে ধরতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ইরানের তেল রফতানিতে ফের যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা কলাবাগানে গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত ইরানে গুপ্তচর নিয়োগ দিয়ে তাদের রক্ষা করার ব্যবস্থা নেয়নি সিআইএ অবসরের পরও অস্ত্রধারী পুলিশের নিরাপত্তা পাবেন বেনজীর বিমানের ইঞ্জিনে পাখি, ভোগান্তিতে সৌদিগামী যাত্রীরা ইউক্রেনে রুশ দখলদারিত্বকে স্বীকৃতি দেবে না যুক্তরাষ্ট্র : বাইডেন ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে দেশ ছাড়ছে টাইগাররা বন্ধ হচ্ছে বিবিসি বাংলার রেডিও সার্ভিস ৬০ কি.মি. বেগে ঝড় হতে পারে রাজধানীসহ ১৫ জেলায় করতোয়ার নৌকাডুবি : ৬ষ্ঠ দিনেও চলছে উদ্ধার অভিযান

সকল