০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ৬ জিলহজ ১৪৪৩
`

রড দিয়ে পিটিয়ে যুবকের পা ভাঙ্গলো চাচাতো ভাই

বরগুনার আমতলীতে রড দিয়ে পিটিয়ে যুবকের পা ভাঙ্গলো চাচাতো ভাই - ছবি : নয়া দিগন্ত

বরগুনার আমতলীতে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে চাওড়া ইউনিয়ন সাবেক ছাত্রলীগের সহসম্পাদক মো: নয়ন মাতুব্বরকে ডেকে নিয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে পা ভেঙ্গে দিয়েছে চাচাতো ভাই জুয়েল মাতুব্বর ও তার সহযোগীরা। গুরুতর আহত নয়নকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে আমতলী পৌর শহরের হাসপাতাল সংলগ্ন ওয়ালটন শোরুমের পাশে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জানা গেছে, আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়ন সাবেক ছাত্রলীগসহ সম্পাদক মো: নয়ন মাতুব্বরের সাথে পাতাকাটা গ্রামের তার চাচাতো ভাই মো: জুয়েল মাতুব্বরের সাথে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। রোববার রাতে নয়ন তার এক আত্মীয়কে দেখতে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়। ওই সময় তাকে আব্দুল্লাহ নামের এক লোক ডেকে হাসপাতাল সংলগ্ন ওয়াল্টন শোরুমের পাশে নিয়ে যায়। সেখানে ওঁৎপেতে থাকা জুয়েল মাতুব্বর, ছালাম মাতুব্বর, বায়েজিদ মাতুব্বর,ইমরান ও নুরু হাওলাদারসহ ৮-১০ জন লোক লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে তার বাম পা ভেঙ্গে দেয় এবং রামদা দিয়ে এলোপাতাতি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

স্থানীয়রা দ্রুত তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। ওই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমন বিশ্বাস তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। রাতেই তাকে সেখানে ভর্তি করা হয়।

গুরুতর আহত নয়নের ভগ্নিপতি সোহেল হাওলাদার বলেন, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে নয়নকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে জুয়েল মাতুব্বর, ছালাম মাতুব্বর, বায়েজিদ মাতুব্বর, ইমরান ও নুরু হাওলাদারসহ ৮-১০ জনে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে বাম পা ভেঙ্গে দিয়েছে এবং রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত জুয়েল মাতুব্বরের সাথে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় পেয়েই ফোনের লাইন কেটে দেন। এরপর বার বার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: সুমন বিশ্বাস বলেন, রোগীর অবস্থা খারাপ দেখে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হামপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, তার পা ও মাথাসহ বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম রয়েছে।

আমতলী থানার ওসি এ কে এম মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনা জেনেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ


premium cement