০৮ মে ২০২১
`

নিরাপত্তাহীনতায় পরিবার, বরগুনায় বসতবাড়িতে হামলা ও লুটপাট

নিরাপত্তাহীনতায় পরিবার, বরগুনায় বসতবাড়িতে হামলা ও লুটপাট - ফাইল ছবি

বরগুনায় বসতবাড়িতে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। এর পরেও এ ঘটনায় পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বরগুনা সদর উপজেলার আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের পূর্ব কেওড়াবুনিয়া গ্রামে মজিবুর রহমান ও তার ভাই মো: হিমু মিয়া।

ডাকাতি, লুটপাট, হামলার বিষয়ে পুলিশ মামলা গ্রহণ নিয়ে গড়িমসি করছেন। করোনায় পূর্ণাঙ্গ আদালত না খোলায় কোর্টেও মামলা করতে পারছেন না মজিবুর রহমান।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ৮টার দিকে বরগুনা সদর উপজেলার আয়লাপাতাকাটা ইউনিয়নের পূর্ব কেওড়াবুনিয়া গ্রামে মজিবুর রহমান ও তার ভাই মো: হিমু মিয়ার বাড়িতে একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

মজিবর রহমানের স্ত্রী ওয়াহিদা পারভিন জানান, শনিবার রাত আনুমানিক ৮টার দিকে ফোরকান, ইউনুস, কামাল, শামিম, আইয়ুব আলী, নান্টু, দেলোয়ার মেম্বার, আলতাফ হোসেনসহ ৩০ থেকে ৪০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল দরজা ভেঙ্গে ঘরে ভাংচুর চালায়। তারা ঘরে থাকা স্টিলের আলমিরা ভেঙ্গে নগদ ৭০ হাজার টাকা, সাত ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও একটি মোবাইল সেট নিয়ে চলে যায়।

তিনি আরো বলেন, পাশের বাড়ির মো: হিমু মিয়ার ঘরও এ সময় ভাংচুর করে। প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাড়িয়ে দেয় আমাদের। এ ঘটনায় মজিবর রহমান বরগুনা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ভুক্তভোগী মজিবুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, লোমহর্ষক এ ঘটনার পরে আইনের আশ্রয়ও নিতে পারছি না। সমাজে তারা প্রভাবশালী। হত্যার ভয় দেখাচ্ছে। তাদের ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। আমাদের পরিবার বাড়িতে নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছে। বাড়িতে ভয়ে যেতে পারছি না।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ মামলা না নেয়ায় প্রতিপক্ষ আমাদের মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। চুরি, লুটপাট, হামলা ও ডাকাতি কোন বিষয়ে মামলা গ্রহণ করবে এ নিয়ে গড়িমসি করছে থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) মো: শহিদুল ইসলাম বলেন, মজিবুর রহমান ও তার ভাই হিমুর ঘরে হামলা করে বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ পাঠিয়ে পুলিশের পিকআপভ্যানে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



আরো সংবাদ