০৮ মে ২০২১
`

আগৈলঝাড়ায় স্বামীর পরকীয়ায় বাধা : স্ত্রী-শ্বশুরসহ ৫ জন পিটিয়ে আহত

-

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় পরকীয়ায় বাধা দেয়া ও যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রী, মেয়ে ও শ্বশুরসহ পাঁচজনকে পিটিয়ে আহত করেছেন এক ব্যক্তি। মঙ্গলবার এ নির্যাতন চালানো হয়। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত দু’জনকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আহত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মোল্লাপাড়া গ্রামের বিনোদ মন্ডলের মেয়ে রূপা মন্ডলের সাথে বাসাইল গ্রামের নীল কান্ত বাড়ৈর ছেলে বাবু বাড়ৈর পাঁচ বছর আগে ধর্মীয়রীতিতে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই ব্যবসার কথা বলে যৌতুকের জন্য চাপ দেন স্ত্রী রূপা মন্ডল ও তার পরিবারের ওপর। দাবিকৃত টাকা না দেয়ায় স্ত্রীর চলে ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন।

অপর দিকে বিয়ের দু’বছর পর তার বড় ভাই কুয়েত প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে পরকীয়া সর্ম্পক গড়ে উঠে বাবু বাড়ৈর। এই পরকীয়া সম্পর্কে বাধা দেয়ায় প্রায় সময়ই নির্যাতনের স্বীকার হতেন রূপা মন্ডল।

মঙ্গলবার দুপুরে দাবিকৃত যৌতুকের টাকা ও পরকীয়া সম্পর্ক নিয়ে ঝগড়া হলে স্ত্রী রূপা মন্ডলকে মারধর করেন বাবু। এ সময় রূপা মন্ডল আত্মরক্ষার্থে পাশের কালাম মৃধার বাড়িতে আশ্রয় নেন। খবর পেয়ে মেয়েকে উদ্ধার করতে আসেন বাবা বিনোদ মন্ডল। তিনি মেয়ে রূপাকে নিয়ে জামাই বাবু বাড়ৈর বাড়িতে গিয়ে মারধরের কারণ জানতে চান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী রূপা মন্ডল, মেয়ে তোরা বাড়ৈ ও শ্বশুর বিনোদ মন্ডলকে মারধর করে আহত করেন বাবু বাড়ৈ। এ সময় তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে স্থানীয় প্রদীপ সমদ্দার ও শামীম মৃধাও আহত হন বাবু বাড়ৈ ও তার স্বজনদের হামলায়।

পরে আহত রূপা মন্ডল, মেয়ে তোরা বাড়ৈ ও বাবা বিনোদ মন্ডলকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় বিনোদ মন্ডল আগৈলঝাড়া থানায় বাবু বাড়ৈসহ পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ জানিয়েছে আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।



আরো সংবাদ