০১ জুন ২০২০

শ্বাসকষ্টে মৃত্যুর পর দুই বাড়ি লকডাউন

-

পটুয়াখালী শহর ও শহরতলীর দুটি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। রোববার দুপুরে বাড়ি দুটি লকডাউন করা হয়।
জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, শনিবার বিকালে শহরের (মাদবর বাড়ী) ওই এলাকায় আঃ রশিদ নামের ৬৫ বছরের এক বৃদ্ধ জন্ডিসসহ নানা সমস্যায় ভুগে নিজ বাড়িতে মারা যান। পরে স্থানীয়দের সন্দেহ হলে তার মৃত্যু করোনাভাইরাসে কিনা সেটা নিশ্চিত করার জন্য রাতে তার নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। রাত ১০টার দিকে দাফন সম্পন্ন হয়। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত আপদকাল পর্যন্ত ওই বাড়িটি জেলা প্রশাসনের নির্দেশক্রমে লকডাউন করা হয়। উল্লেখ্য তার বাড়ি ভোলা জেলায় পেশায় ভ্যানচালক ছিলেন। তিনি তার মেয়ের বাসায় বেড়াতে এসেছিলেন।

অপরদিকে সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সদর উপজেলার টাউন বহালগাছিয়া এলাকায় থাকতেন মোঃ জাকির হোসেন নামের এক ব্যক্তিকে শনিবার শেষ বিকালে পটুয়াখালীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল থেকে বরিশাল শেবাচিমের আইসোলেশনে ভর্তির পর রাতে তিনি মারা যান। তার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি গলাচিপার লামনা গ্রামে।
বরিশাল মেডিকেলের পরিচালক ডাঃ মোঃ বাকির হোসেন সাংবাদিকদের জানান, তিনি শাসকষ্ট, জ্বর ও সর্দিকাশি নিয়ে বরিশাল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল তবে তার মৃত্যু করোনায় কিনা সেটা বলা যাচ্ছে না। কারণ বরিশালে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা নেই।


আরো সংবাদ