২৯ মার্চ ২০২০

পটুয়াখালীতে কোয়ারাইন্টানে থাকা দুজনের নমুনা আইইডিসিআর-এ প্রেরণ

পটুয়াখালীতে কোয়ারাইন্টানে থাকা দুজনের নমুনা আইইডিসিআর-এ প্রেরণ - ছবি : সংগৃহীত

পটুয়াখালীতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ সন্দেহে ২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠাণে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। এ পর্যন্ত হোম কোয়ারাইন্টনে আছেন ২ হাজার ১৬৫ জন এবং কোয়ারাইন্টান থেকে মুক্ত হয়েছে ন ৪০২ জন।

রোববার জেলা প্রশাসক দরবার হলে জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মো: মতিউল ইসলাম চৌধুরী এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, পটুয়াখালী জেলায় গত ৩ মাসে বিদেশফেরত ৮ হাজার ৩৪৪ জনের তালিকা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ২ হাজার ৫৬৭ জনকে শনাক্ত করা গেছে। বাকীদের ব্যাপারে অনুসন্ধার অব্যাহ রয়েছে।

হোম কোয়ারাইন্টাইন না মানার দায়ে এ পর্যন্ত ৩ জনকে শাস্তির আওতায় এন ১৭ হাজার টাকা অর্থ দণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক বলেন, করোনার পাশাপাশি জেলায় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, মজুদদারীদের বিরুদ্ধে গত ২ দিনে (২০ ও ২১ মার্চ) মোট ৪৭টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়েছে এবং ৪৭টি মামলার বিপরীতে ৫ লক্ষ ৩২ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। বাজার সমূহ মনিটরিং এর আওতায় আছে। ক্রেতা ও বিক্রেতাদেরকে সহনশীল আচরনের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

উক্তসভায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা করোনা  ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব সিভিল সার্জন ডা: মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা পর্যায় করোনাভাইরাস কভোডি-১৯ প্রতিরোধে জনগনকে সচেতন করার কার্যক্রম অব্যাহত আছে। 

বক্তব্য রাখেন ২৫০ শয্যা বিশিস্ট পটুয়াখালী হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা: এ এম মতিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: হেমায়েত উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: মামুনুর রশিদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এফ. সরফরাজ, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা: মোহাম্মদ তৈয়বুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী শামসুর রহমান ইকবাল, অর্থ সম্পাদক আবদুস সালাম আরিফ, সাবেক সভাপতি জাকির হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, জাকির মাহমুদ সেলিম প্রমুখ।

সভায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ও চিকিৎসা সেবা প্রদানে নবনির্মিত জেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস ভবনে ৫০টি কোয়ারেন্টাইন ও ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঁচ বেডের আইসোলেশন প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ ছাড়াও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনাবৃদ্ধির জন্য প্রচার মাইকিং,  লিফলেট বিতরণ ও মাস্ক বিতরণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম অব্যাহত আছে বলেও সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম  সভায় জানান।


আরো সংবাদ