২৯ মার্চ ২০২০

শরীয়তপুরে গৃহবধু হত্যায় তিনজন আটক

শরীয়তপুরে গৃহবধু হত্যায় তিনজন আটক - সংগৃহীত

নড়িয়ায় মালয়েশিয়া প্রবাসী ইমরান চৌকিদারের স্ত্রী তানিয়া আক্তারকে (২৩) হত্যা করে সিলিং ফ্যানে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার পৃথক স্থান থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ ও নিহতের মা মাকসুদা বেগম জানান, প্রায় ৫ বছর পূর্বে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পশ্চিম লোনসিং গ্রামের চাঁন মিয়া চৌকিদারের ছেলে ইমরান চৌকিদারের (২৫) সাথে একই উপজেলার কালিকা প্রসাদ গ্রামের তাহের মাদবরের মেয়ে তানিয়া আক্তারের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের ৭ মাস পর ইমরান মালয়েশিয়া চলে যায়। স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে তানিয়ার শাশুড়ী রিনা বেগমসহ (৫০) পরিবারের লোকজন প্রায়ই তাকে শারিরীক ও মানষিক নির্যাতন করতো। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার গোসলখানা তৈরি করা নিয়ে তাদের সঙ্গে ঝগড়া হয় তানিয়ার। এক পর্যায়ে সন্ধ্যায় শ্বশুর বাড়ির লোকজন তানিয়াকে স্বাসরোধ করে হত্যা করে সিলিং ফ্যানে ঝুঁলিয়ে রাখে এমনটাই অভিযোগ নিহতর পরিবারের। খবর পেয়ে রাতে নড়িয়া থানা পুলিশ তানিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তানিয়ার মা মাকসুদা বেগম বাদী হয়ে চারজনকে আসামী করে নড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ আজ শনিবার দুপুরে আসামী শাশুরী রিনা বেগম, ননদ চায়না আক্তার, ও জা রত্মা বেগমকে গ্রেফতার করে।

নড়িয়া থানা পুলিশের ওসি মো. হাফিজুর রহমান বলেন, সুরতহাল রিপোর্টের ভিত্তিতে আমরা প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছি তানিয়াকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি নিয়মিত হত্যা মামলা হয়েছে। মামলার তিনজন আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপর আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


আরো সংবাদ