০৩ এপ্রিল ২০২০

রিফাত হত্যায় আরো ৮ জনের সাক্ষ্য ও জেরা

রিফাত হত্যায় আরো ৮ জনের সাক্ষ্য ও জেরা - সংগৃহীত

বরগুনায় চাঞ্চল্যকর শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় পৃথক আদালতে আরো ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার জেলা ও দায়রা জজ মো. আছাদুজ্জামান ও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারক মো. হাফিজুর রহমানের আদালতে তাদের সাক্ষ্য ও জেরা রেকর্ড করা হয়।

বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ভবন চন্দ্র হাওলাদার বলেন, আজ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে দুইজন ও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ছয় আসামীর সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা রেকর্ড করা হয়ছে। এদের মধ্যে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী ও বরগুনা থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মাকসুদা বেগম, জয় চন্দ্র রায়, বৃষ্টি দাস, তাপস দেবনাথ, ফারুক সিকদার ও মোসা: হেপী বেগম স্বাক্ষী দেন।

তিনি আরো বলেন, পৃথক আদালতে এ পর্যন্ত ১১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে। এদের মধ্যে জেলা ও দায়রা আদালতে ৭৩ জন ও শিশু আদালতে ৩৯ জনের সাক্ষ্য ও জেরা সমাপ্ত হয়েছে। মঙ্গলবার আদালতে তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. হুমায়ূন কবির, ঢাকা সিআইডির আইটি শাখার ফরেনসিক বিভাগের দুইজন একে নাজমুল হোসেন ও জাকির হোসেন ইমন সাক্ষ্য দিলে সাক্ষ্য পর্ব শেষ হবে।

আদালতে সাক্ষ্য দেয়ার পর বরগুনা থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আমি ২৬ জুন দিবাগত রাত ১-০৫ মিনিটে বাদী আবদুল হালিম দুলাল শরীফের টাইপকৃত অভিযোগ পেয়ে এজাহার রুজু করে বরগুনা থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. হুমায়ূন কবিরকে তদন্তের জন্য প্রেরণ করি।

আরেক স্বাক্ষী ফারুক সিকদার বলেন, রিফাত শরীফকে যে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সেই দা পুলিশ বরগুনা সরকারী কলেজের উত্তর পাশে একটি ডোবা থেকে উদ্ধার করে। আমি সেই সময় উপস্থিত ছিলাম। পুলিশ ওই দা জব্দ করেন। আমি সেই জব্দ তালিকায় স্বাক্ষর করি।

জয় চন্দ্র রায় বলেন, আমি রিফাত শরীফকে কোপাতে দেখিনি। তবে ২৬ জুন রিফাত শরীফকে আসামী রিফাত ফরাজি, রিশান ফরাজি, তানভির, চন্দনসহ অনেক ছেলেরা রিফাত শরীফকে কলেজ গেট থেকে ক্যালিক্স একাডেমির সামনে মারতে মারতে নিয়ে আসে। এ গুলো ভিডিওতে দেখছি।

দায়রা আদালতে আসামী কামরুল ইসলাম সায়মুনের আইনজীবী আবদুর রহমান বলেন, ম্যাজিষ্ট্রেট সাহেব ৮ জন আসামীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ও ৫ জন স্বাক্ষীর ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করেছেন। আমরা তাকে সাজেশন দিয়েছি। তিনি যথাযথ ভাবে জবানবন্দি রেকর্ড করেননি।


আরো সংবাদ

সাম্প্রদায়িক এই ট্র্যাজেডি করোনাভাইরাসের চেয়েও বড় হুমকি : আরশাদ মাদানি সাতক্ষীরায় জ্বর, সর্দি নিয়ে কলেজছাত্রের মৃত্যু করোনার থাবায় যুক্তরাষ্ট্রে এক কোটি বেকার দেশে আরো ৫ করোনা রোগী শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ৬১ করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে রিভারসাইড ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের ত্রাণ বিতরণ ৩০০ কর্মহীন পরিবারের খাদ্যের দায়িত্ব নিলেন গ্রামের সচ্ছলরা ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৬, আক্রান্ত ছাড়ালো ২৩০০ আইসোলেশনে থাকা আরো একজনের মৃত্যু, বাড়ি লকডাউন করোনা পরিস্থিতিতে মোবাইলে ২৪ ঘন্টা চিকিৎসাসেবা করোনাভাইরাস: বগুড়ায় ৩ বাড়ি লকডাউন দ্বিতীয়বার করোনাভাইরাস পরীক্ষা করালেন ট্রাম্প

সকল