১৩ আগস্ট ২০২২
`

আমতলী ও রাঙ্গুনিয়ায় পুড়ে গেছে ১৫ দোকান ও ৫ বাড়ি

-

বরগুনার আমতলী ও চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় গতকাল দু’টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এসব অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি দোকান ও পাঁচটি বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।
আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা জানান, ভয়াবহ এক অগ্নিকাণ্ডে আমতলী উপজেলার আমড়াগাছিয়া বাজরের ১৫টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে অন্তত পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
জানা গেছে, উপজেলার আমড়াগাছিয়া বাজারের আল আমিনের জ্বালানি তেলের দোকান থেকে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে।
আগুনে আল আমিনের জ্বালানি তেলের দোকান, আব্বাস কাজীর হোটেল, দুলাল প্যাদা, হালিম মিয়ার মুদিদোকান, লিটন মৃধার চালের আড়ত, নাশির প্যাদার চালের আড়ত, লতিফ সিকদারের ফার্মেসি, আবু তাহের চৌকিদার ফার্মেসি, বাবুল চৌকিদার কীটনাশকের দোকান, রাজিব সরদারের মোবাইলের দোকান, ছত্তার ফকিরের আমের আড়ত পুড়ে ছাই হয়েছে এবং মোস্তাফিজুর রহমান শাহিনের বসতঘরসহ অন্তত আরো চারটি দোকান আংশিক পুড়ে গেছে।
আমতলী ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মো: গোলাম মোস্তফা বলেন, ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে। আমতলী থানার ওসি এ কে এম মিজানুর রহমান বলেন, ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সাথে পুলিশ বাহিনী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে।
আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ কে এম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে।
রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় গতকাল বুধবার ভোরে ভয়াবহ এক অগ্নিকাণ্ডে পাঁচটি বসতবাড়ি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গেছে। এতে নগদ পাঁচ লাখ টাকাসহ প্রায় কোটি টাকার সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা জানান।
জানা যায়, উপজেলার মরিয়মনগরের পূর্ব সৈয়দবাড়ি ১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে মোজাফফর হোসেন, মোজাম্মেল, মো: মোদাচ্ছের, ইয়াসমিন ও মোহাম্মদ রকির বসতবাড়ি সম্পূর্ণ পুড়ে ভস্মীভূত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত মো: মোদাচ্ছের বলেন, কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই সর্বনাশ হয়ে গেল। তিনি আরো বলেন, পাশর্^বর্তী এক পরিবারের সাথে আমাদের জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে একাধিক মামলা-মোকদ্দমা চলছে।
রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ কামরুজ্জামান সুমন বলেন, ঘটনাস্থলে এমনভাবে বাড়িগুলো রয়েছে যে, ফায়ার সার্ভিসের পানিবাহী গাড়ি প্রবেশের জায়গা নেই, যার কারণে অনেক দূর থেকে কাজ চালাতে হয়েছে।

 


আরো সংবাদ


premium cement