০২ জুলাই ২০২২
`

উখিয়া প্রেস ক্লাবের পাশে ময়লার ভাগাড়

-

উখিয়া প্রেস ক্লাবের পাশে ময়লার ভাগাড়। দুর্গন্ধে হাঁটা যায় না। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে গেলেও ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। দু-একটি এনজিওর মাধ্যমে বাসাবাড়ি ও ড্রেনের ময়লা নিষ্কাশনের ব্যবস্থা নিতে দেখলেও কী কারণে প্রেস ক্লাবের পাশের ময়লা পরিষ্কার করা হচ্ছে না তা বোধগম্য নয় এলাকাবাসীর। স্থানীয় মালভিটা পাড়া এলাকার মাস্টার রফিক বলেন, উখিয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও উখিয়া সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের শত শত ছাত্রছাত্রী এই রাস্তা দিয়ে হেঁটে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া করে থাকে। দুর্গন্ধে হাঁটা যায় না। এহেন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে যারা ময়লা ফেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া জরুরি। পাশাপাশি ময়লা পরিষ্কার করে নির্মল বাতাস পেতে সবার এগিয়ে আসা উচিত।
উখিয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্রী আয়েশা ও রাবেয়া বলে, আমাদের প্রতিদিন স্কুলে যাওয়া-আসার সময় নাকে রুমাল দিয়ে হাঁটতে হয়। দুর্গন্ধে হাটাচলা করা দুষ্কর। উখিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র তাহমিদ ও তামজিদ কবির বলেন, আমরা সুন্দর পরিবেশ চাই। উখিয়ার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ময়লা আবর্জনা। এগুলো দেখার কি কেউ নেই। কেউ আমাদের কথা ভাবে না। এখানে উখিয়াতে শিশুদের জন্য বিনোদনের কোনো ব্যবস্থা নেই। আপনারা সাংবাদিক আমাদের পক্ষ হয়ে শিশুদের জন্যে লিখবেন। আমরা নির্মল ও পরিচ্ছন্ন উখিয়া দেখতে চাই।
উখিয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাঈদ মোহাম্মদ আনোয়ার বলেন, উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশলীর সাথে কথা হয়েছে। তিনি দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যস্থা গ্রহণের কথা বলেছেন। কিন্তু অনেক দিন হয়ে গেলেও ব্যবস্থা না নেয়ায় এলাকাবাসির পাশাপাশি সাংবাদিকদের ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি জানান, এটি পরিস্কার হলে হলদিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিন দিয়ে এটি ঘিরে রাখতে প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা করবেন বলেও কথা দিয়েছেন। ‘পরিকল্পিত উখিয়া চাই’ এর আহ্বায়ক সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, সব কিছু অপরিকল্পিত হওয়ায় জনদুর্ভোগ বাড়ছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ময়লা পরিস্কার করা না হলে সাংবাদিকরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।
উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশলী আল আমিন জানান, কয়েক দিনের মধ্যে এটি পরিষ্কার করা হবে। সে সময় সাংবাদিকদের সাথে রাখা হবে। আমরা সবাই মিলে উখিয়াকে সুন্দর রাখতে চাই।
উখিয়া সদর দারোগা বাজারের ব্যবসায়ী নুর আহমদ বলেন, দারোগা বাজারের ড্রেন ভরাট হয়ে আছে। এখন পরিষ্কার করা না হলে বর্ষায় থইথই পানিতে দারোগা বাজারসহ পুরো এলাকা প্লাবিত হবে। দোকান পাট ও বাড়িঘরে ময়লার পানি ঢুকে পড়বে। তখন কষ্টের সীমা থাকবে না। তাই সময় থাকতে ড্রেন পরিষ্কার করতে হবে।


আরো সংবাদ


premium cement
সৌদি আরবে আরো ৩ বাংলাদেশী হজযাত্রীর মৃত্যু চট্টগ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে জামায়াতের গৃহ ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ তাহিরপুরে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও বন্যার্তদের মধ্যে ভারতীয় হাইকমিশনের ত্রাণ বিতরণ কওমি মাদরাসা নিয়ে ফখরুল ইমাম এমপির বক্তব্যের প্রতিবাদ শিবিরের ফুলগাজীতে বিএনপির ত্রাণ বিতরণের প্রস্তুতি সভায় আ’লীগের হামলায় আহত ৩০ চট্টগ্রামে ৫০ চোরাই মোবাইলসহ পাকড়াও ৪ চোর হামলার ভয়ে বড়থলির ২৩টি পরিবার বান্দরবানে আশ্রয় নিয়েছে হবিগঞ্জে মোবাইল কেনাবেচা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১ চট্টগ্রামে গরুর বাজার দখলের চেষ্টা অস্ত্রসহ ৩ ছাত্রলীগ ক্যাডার গ্রেফতার বগুড়ায় আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কাজ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ডিএসসিসি পশুর হাটে থাকবে ১১ ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম

সকল