২৩ এপ্রিল ২০২১
`

আদালতকে অবজ্ঞা করে মুক্তিযোদ্ধার জমিতে ওয়াশ ব্লক নির্মাণ

-

বগুড়া শহরের মালতিনগর স্টাফ কোয়ার্টার সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমানের সম্পত্তির ওপর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওয়াশ ব্লক নির্মাণের ঘটনায় প্রধান শিক্ষকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা বিচারাধীন থাকলেও আবারো কাজ শুরু হয়েছে। আদালতের কারণ দর্শাও নোটিশের জবাব না দিয়ে বারবার সময় নেয়ার আবেদনে ক্ষুব্ধ মুক্তি যোদ্ধা শহীদুর রহমান। বগুড়ার ধুনট উপজেলার চুনিয়াপাড়ার মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমান ও তার স্ত্রী সুলতানা রহমান বাদি হয়ে গত ৯ ডিসেম্বর বগুড়ার সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মমিনুল ইসলাম জবাব দেয়ার জন্য বিবাদিদের প্রতি কারণ দর্শাও নোটিশ জারি করলেও গত দুই মাসে জবাব না দিয়ে তিনদফা সময় নিয়েছেন। সর্বশেষ ৪ মার্চ পরবর্তী দিন ধার্য থাকলেও বিবাদীরা স্কুল কর্তৃপক্ষ আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হয়ে আবারো ঠিকাদারকে দিয়ে নির্মাণকাজ শুরু করেছেন।
এ ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমান বলেন, আদালতে জবাব না দিয়ে আমার জায়গা বেদখল করতে আবারো কাজ করা হচ্ছে। আমি এর প্রতিকার চাই।
এ ব্যাপারে স্টাফ কোয়ার্টার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহুয়া আকতার বলেন, আদালতে জবাব দেয়ার বিষয়টি আইনজীবী ভালো জানেন। কাজ করতে কোনো নিষেধাঙ্গা না থাকায় কাজ করছে ঠিকাদার।
বগুড়া সদরের মালতিনগর মৌজার সরকারি স্টাফ কোয়ার্টারসংলগ্ন ছয় শতক জমির মালিক আজিমুদ্দিনের কাছ থেকে ২০০৩ সালের ১৯ নভেম্বর বাদিদ্বয় কিনে দলিল সম্পাদন করেন। সম্প্রতি জমির পাশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই জমির ওপর সরকারি খরচে ওয়াশ ব্লক নির্মাণকাজ শুরু করেছেন।
ইতোমধ্যে দ্বিতল ভবনের কাজ শেষ হয়েছে। এ ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমান আদালতে নির্মাণকাজ বন্ধের আদেশ চেয়ে আবেদন করেছেন।বগুড়া অফিস



আরো সংবাদ