২৭ জানুয়ারি ২০২১
`

ফেনীতে আলো ছড়াচ্ছে নূরুন নাহার মনি দাতব্য চিকিৎসালয়

-

জেলা সদর থেকে ১৭ কিলোমিটার দূরে উত্তর ফাজিলপুরে ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে ওঠা নূরুন নাহার মনি দাতব্য চিকিৎসালয় ও চক্ষু হাসপাতালটি এই জনপদে আশার আলো ছড়াচ্ছে। প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছরে অন্তত ২৪ হাজার মানুষ চিকিৎসা সুবিধা পেয়েছেন প্রতিষ্ঠানটি থেকে। শুধু চোখের অপারেশন করা হয়েছে এক হাজারেরও বেশি লোকের। আশপাশের অন্যান্য জেলা থেকেও বিনামূল্যে সেবা পাচ্ছেন অসহায়-দরিদ্ররা। রাজধানীর শমরিতা হাসপাতালের কর্ণধার ডা: এ বি এম হারুন নিজ গ্রামে এ প্রতিষ্ঠানটি বেসরকারি উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন।
৫০ শয্যার এ হাসপাতালে পুরুষ, মহিলা ও শিশু ওয়ার্ড রয়েছে। বহির্বিভাগ সাধারণ রোগীদের জন্য সকাল ৮টা-বেলা ১টা এবং বিকেল ৪টা-সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত খোলা থাকে। সপ্তাহে পাঁচদিন সব ধরনের রোগীর ব্যবস্থাপত্র ও অসহায় রোগীদের ওষুধ দেয়া হয়। চক্ষু চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চক্ষু সার্জন দ্বারা চোখের ছানি অপারেশনসহ সব ধরনের চিকিৎসা বিনামূল্যে করা হয়। অপারেশন, ওষুধ, খাবার, হাসপাতালে থাকাসহ সবকিছুই বিনামূল্যে। কলেজ ও স্কুলের একদল শিক্ষার্থী স্বেচ্ছাশ্রমে পালাক্রমে এখানে সেবা দিচ্ছে।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, করোনা মহামারীতে দীর্ঘ বিরতির পর শুক্রবার নূরুন নাহার মনি দাতব্য চিকিৎসালয় ও চক্ষু হাসপাতালে ১৭ জন রোগীর অপারেশন করা হয়েছে। এ ছাড়া ৬৭ জন রোগীর চোখের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
হাসপাতালের স্থানীয় তত্ত্বাবধায়ক এন এন এম আলমগীর বলেন, শমরিতা হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা: এ বি এম হারুনের পৃষ্ঠপোষকতায় হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠিত হয়।
এলাকার বাসিন্দা ফেনী সেন্ট্রাল হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জানান, এলাকার দরিদ্র-অসহায় রোগীদের চিকিৎসার নিরাপদ ঠিকানা হয়ে উঠেছে নূরুন নাহার মনি দাতব্য চিকিৎসালয়।
রাজধানীর ইসলামিয়া হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা: সোহেল মাহমুদ জানান, চক্ষু চিকিৎসায় এ হাসপাতাল স্থানীয়ভাবে যথেষ্ট অবদান রাখছে। যা দেশে বেসরকারিভাবে ফ্রি চিকিৎসাসেবায় অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হতে পারে।
হাসপাতালের উদ্যোক্তা ডা: এ বি এম হারুন বলেন, আমার এলাকায় গরিব ও দুঃখী মানুষের জন্য একজন চিকিৎসক হিসেবে কিছু করার চিন্তা থেকে আমি নিজ গ্রামে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করি। এ ছাড়া হাসপাতালের পাশেই দৃষ্টিনন্দন মসজিদ ও ইসলামী পাঠাগার স্থাপন করা হয়েছে। ভবিষ্যতে নিজ গ্রামে বেকারত্ব দূরীকরণে ভোকেশনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, নার্সিং ইনস্টিটিউট, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসহ বেশ কিছু কর্মসূচি তিনি হাতে নিয়েছেন বলে জানান।



আরো সংবাদ