১২ আগস্ট ২০২০

খানাখন্দে বেহাল খেয়ারহাট সাহেরখালী বেড়িবাঁধ সড়ক

-
24tkt

মিরসরাই উপজেলার সাহেরখালী ইউনিয়নের খেয়ারহাট-বেড়িবাঁধ সড়ক খানাখন্দে প্রায় চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কে যাতায়াতকারীদের গ্রীষ্মের মৌসুমে কোনোভাবে চলাচল করতে পারলেও বর্ষা মৌসুমে চলাচলে দুর্ভোগ ও ভোগান্তি পোহাতে হয়। স্থানীয় সূত্র জানায়, সাহেরখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ মঘাদিয়া এলাকার খেয়ারহাট থেকে বেড়িবাঁধ সড়ক (হৈয়ামিয়া-ছেরাছমিয়া) প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে খেয়ারহাট থেকে ৭০০ মিটার কার্পেটিং হলেও নামার বাজার থেকে আমতল, আমতল থেকে বেড়িবাঁধ পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে।
সরেজমিন দেখা যায়, সড়ক নির্মাণে ব্যবহৃত ইট, কংক্রিট অনেকটা উঠে গেছে। সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় গর্তের। গত কয়েক দিনের বৃষ্টির পানি রাস্তায় জমে কাদায় একাকার হয়ে আছে। পশ্চিম মায়ানী আদর্শ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সালেক জানান, রাস্তাটি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় পানি জমে হাঁটু পরিমাণ কাদা হয়। কাদা মাড়িয়েই স্থানীয়দের যাতায়াত করতে হয়। এনামুল হক, জাকারিয়াসহ আরো কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভোট এলেই এ সড়ক সংস্কার করে দেয়ার প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি দেন জনপ্রতিনিধিরা। কিন্তু নির্বাচন পার হয়ে গেলে তাদের আর খবর থাকে না। তাদের দাবি, দ্রুত এ সড়কের সংস্কার কাজ করে মানুষকে ভোগান্তি থেকে রক্ষা করার।
১৬ নং সাহেরখালী ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হায়দার চৌধুরী বলেন, ইতোমধ্যে দক্ষিণ মঘাদিয়া এলাকার খেয়ারহাট থেকে বেড়িবাঁধ সড়কে প্রায় ৭০০ মিটার কার্পেটিং কাজ শেষ হয়েছে। বাকি প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন। আশা করছি শিগগিরই টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ করে আমরা কাজ শুরু করতে পারব।

 


আরো সংবাদ