০৩ জুন ২০২০

সরাইলে ৪ বছর তালাবদ্ধ সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্র

-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার পাকশিমূল ইউনিয়নের জয়ধরকান্দী স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রটি চার বছর ধরে বন্ধ রয়েছে। ফলে সরকারি এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন স্থানীয় হাজার হাজার জনগণ। উপজেলা সদর থেকে বিচ্ছিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চল জয়ধর কান্দি গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি সরকারি অর্থায়নে নির্মিত হলেও চিকিৎসাসেবার তেমন সুবিধা পাচ্ছেন না এলাকার জনগণ। চিকিৎসক ও প্রয়োজনীয় জনবলের অভাবে দীর্ঘ দিন ধরে স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি তালাবদ্ধ থাকলেও তা সচল করতে প্রশাসনিকভাবে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে না।
স্থানীয়দের অভিযোগ, স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি সচল করার জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে দাবি জানালেও কোনো ক্রমেই চালু হচ্ছে না। আগে থেকে দায়িত্ব পালন করে আসা একজন উপস্বাস্থ্য সহকারীর অবসরজনিত কারণে ওই পদটি শূন্য থাকায় দীর্ঘ দিন ধরে স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিতে এ অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টদের দাবি। ফলে চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এখানকার জয়ধরকান্দী, রিমপুর, কদরপুর, কাসেমপুর, তেলি কান্দী, শিমূল কান্দী,বাঘী ও মহিষবেড়সহ এই আট গ্রামের প্রায় ১২ হাজার মানুষ।
এ ব্যাপারে জয়ধরকান্দী গ্রামের ইউপি সদস্য মো: সালা উদ্দিন বলেন বিশ্বনাথ নামে এক ডাক্তার অবসরে যাওয়ার পর এখানে আর কোনো ডাক্তার আসেননি। চার বছর ধরে হাসপাতালটি বন্ধ। উপজেলায় এ নিয়ে বহু যোগাযোগ করেছি কোনো ফল পাইনি। শুনেছি একজন ডাক্তার নিয়োগ দেযা হয়েছে কিন্তু কোনো দিন তেিক দেখিনি।
এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মো: নোমান মিয়া বলেন, অবসরজনিত কারণে ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির কর্মকর্তার পদটি শূন্য থাকায় দুই বছর ধরে চিকিৎসা কার্যক্রম কিছুটা ব্যাহত হয়েছে। শিগগিরই একজন ডাক্তার এর তত্ত্বাবধানে স্বাস্থ্যকেন্দ্রটিতে চিকিৎসাসেবা নিয়মিত চালু রাখার উদ্যোগ গ্রহণ হবে।


আরো সংবাদ