২৫ মে ২০২০

স্বামী-স্ত্রীর পেটে মিলল ১০৫০ পিস ইয়াবা

-

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় এক দম্পতিকে আটকের পর তাদের পেটের ভেতর থেকে পাওয়া গেছে এক হাজার ৫০ পিস ইয়াবা। এ ঘটনায় ওই দম্পতিসহ আরো একজনকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এতথ্য জানানো হয়।
ফরিদপুরের ভাঙ্গা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ভাঙ্গা উপজেলার ব্রাহ্মণপাড়া গ্রামের নুরুল হক মুন্সীর ছেলে মিঠুন মুন্সীর বাড়ি থেকে মিরাজ শেখ (৩৫) ও তার স্ত্রী জাকিয়া সুলতানাকে (৩০) আটক করা হয়। রোববার সকালে তাদের এক্সরে ও আল্ট্রাসনোগ্রাম করে পেটে ইয়াবা পাওয়া যায়। এরপর তারা টয়লেট করলে ইয়াবা বেরিয়ে আসে। মিরাজের পেটে ১৭ পোটলা ও জাকিয়ার পেটে ৪ পোটলা ইয়াবা ছিল। প্রতি পোটলায় ৫০টি করে এক হাজার ৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার হয়।
তিনি জানান, টেকনাফ থেকে এই দম্পতি পেটের মধ্যে করে ইয়াবার চালান নিয়ে খুলনায় ফিরছিল। পথে মাওয়া ঘাটে পৌঁছতে রাত হয়ে যাওয়ায় কোনো গাড়ি না পেয়ে এরা মিঠুন মুন্সির বাড়িতে আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানার ওসি শফিকুর রহমানের নেতৃতে একদল পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।
আটক মিরাজ পিরোজপুর জেলার পশ্চিম ডুমুরতলা গ্রামের আবু আল শেখের ছেলে। আর জাকিয়া ঢাকার ধামরাইয়ের দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে। তারা সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী বলে পরিচয় দেয়।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম আরো জানান, এই দম্পতি আন্তঃজেলা মাদককারবারি। তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় ওই দম্পতির বিরুদ্ধে মাদক আইনে ভাঙ্গা থানায় একটি মামলা হয়েছে।


আরো সংবাদ





maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv gebze evden eve nakliyat buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu