২৫ মে ২০২০

ভাণ্ডারিয়ায় হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে রোগী নেই

-

করোনা আতঙ্কে পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ক্লিনিকগুলোতে অস্বাভাবিকভাবে কমেছে রোগীর সংখ্যা। হাসপাতালসংশ্লিষ্টরা জানান, স্বাভাবিকভাবে ভাণ্ডারিয়া হাসপাতালে গরমকালে প্রতিদিন পাঁচ শতাধিক রোগী বহির্বিভাগে এবং দেড় শতাধিক রোগী জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নিতেন। কিন্তু গত তিন-চার দিন ধরে এসব স্থানে রোগীর সংখ্যা কমে গেছে। শুধু জরুরি বিভাগে সেবা নিতে আসতে দেখা গেছে। শনিবার ভাণ্ডারিয়া হাসপাতালের জরুরি বিভাগে মাত্র ১৫-২০ জন সেবা নিয়েছেন বলে জানা গেছে। করোনা আতঙ্কে খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউই হাসপাতালে আসছেন না বলে রাজিব নামে এক স্বাস্থ্যকর্মী জানান। উপজেলার ফাতিমা ক্লিনিকের পরিচালক বিজন কান্তি বেপারী জানান, গত পাঁচ দিনে নতুন কোনো রোগী চিকিৎসা নিতে আসেননি বা ভর্তি হননি। উপজেলাজুড়ে একই অবস্থা।
স্থানীয় সচেতন নাগরিক নাজমুল হোসেন জানান, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য সরকার পদক্ষেপ নেয়ায় বাইরেও লোকজন খুব কম বের হচ্ছে। ফলে ছোটখাটো সমস্যা নিয়ে কেউই হাসপাতালে আসছেন না। এতেই হাসপাতালগুলোতে রোগীর সংখ্যা অস্বাভাবিক কমে এসেছে।
এ দিকে স্থানীয় ওষুধ ব্যবসায়ী খোকন জানান, করোনা আতঙ্কে হাসপাতালের সামনের ডাক্তারদের সব চেম্বার বন্ধ। রোগীরা এসে ডাক্তারদের চেম্বার বন্ধ দেখে চলে যাচ্ছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: জহিরুল ইসলাম বলেন, খুব কম সংখ্যক রোগী হাসপাতালে আসছেন। তবে এখানে এখনো কোনো করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। এ উপজেলায় যারা বিদেশ থেকে এসেছেন তাদের বাড়ি চিহি“ত করে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে। সবাইকে আপাতত কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।


আরো সংবাদ





maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv gebze evden eve nakliyat buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu