১১ এপ্রিল ২০২০

মাদক ও জুয়ার টাকা না পেয়ে বৃদ্ধ বাবা-মাকে নির্যাতন

-

মাদক ও জুয়া খেলার টাকা না দিলেই বৃদ্ধ বাবা-মাকে নির্যাতন ও মারধর করে শরীয়তপুর সদরের আড়িগাঁও গ্রামের ফজলুর রহমান ছেলে শাহ আলম। ছেলের নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে পালং মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন শাহ আলমের বাবা। ইতঃপূর্বেও মায়ের করা একই অভিযোগে পুলিশ শাহ আলমকে আটক করলে মুচলেকা দিয়ে ছাড়িয়ে নেয় তার অন্য স্বজনরা। বাবা-মায়ের পাশাপাশি স্থানীয় লোকজন এ ন্যক্কারজনক ঘটনায় শাহ আলমের বিচার দাবি করেছেন।
জানা যায়, ২০১৯ সালে ফজলুর রহমান হজে যাওয়ার আগে তার সম্পত্তি ছেলে ও মেয়েদের নামে বণ্টন করে দেন। ইতোমধ্যে শাহ আলম তার অংশ বিক্রি করে জুয়া ও মাদকের পেছনে শেষ করেছে। প্রায় তিন মাস আগে তার মা রাহেলা বেগমের কাছে টাকা চেয়ে না পেয়ে বেধড়ক মারধর করে শাহ আলম। পরে সন্তানরা হাসপাতালে ভর্তি করে মাকে চিকিৎসা করান। এ ঘটনার পর তার মা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ওই সময় পুলিশ শাহ আলমকে আটক করলে থানা থেকে মুচলেকার মাধ্যমে ছাড়িয়ে নেয় তার অন্য স্বজনরা। এখানেই শেষ নয়। শাহ আলম ছাড়া পেয়ে পরিবর্তন না হয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। সর্বশেষ গত ২২ মার্চ শাহ আলম তার বাবার কাছে টাকা চায়। বাবা ফজলুর রহমান টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করে রক্তাক্ত করে। পরে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বর্তমানে কিছুটা সুস্থ। ফজলুর রহমান ছেলের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। এ ঘটনার পর থেকে শাহ আলম পলাতক রয়েছে।


আরো সংবাদ