০৮ এপ্রিল ২০২০

সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের ভোগান্তি

-

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্যসেবা চিকিৎসক সঙ্কটে ব্যাহত হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন সেবা নিতে আসা রোগীরা। প্রয়োজনের তুলনায় চিকিৎসক কম থাকায় অনেকেই দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থেকে সেবা নিচ্ছেন। দীর্ঘ দিন ধরে চিকিৎসক সঙ্কট চললেও এর কোনো সমাধান পাচ্ছেন না এলাকাবাসী। দ্রুত এ সঙ্কট নিরসনে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছেন এলাকাবাসী।
জানা যায়, সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বর্তমানে ২১ জন চিকিৎসকের পদ রয়েছে। কিন্তু কর্মরত রয়েছেন মাত্র আটজন। এর মধ্যে একজন ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করায় সাতজন চিকিৎসক দিয়ে চলছে এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবা কার্যক্রম। ফলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসা রোগীদের স্বাভাবিক চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে দায়িত্বরত চিকিৎসকদের। সোনারগাঁও উপজেলা ছাড়াও পার্শ¦বর্তী আড়াইহাজার ও মেঘনা উপজেলার চরাঞ্চলের জনগণও এখানে স্বাস্থ্যসেবা নিতে আসেন। এ ছাড়া রয়েছে বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিক ও তাদের পরিবার।
সরেজমিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে জানা যায়, প্রতিদিন গড়ে এখানে চার শত থেকে পাঁচ শতাধিক রোগী আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসেন। গ্রীষ্ম মৌসুমে এ রোগীর সংখ্যা বেড়ে যায়। চিকিৎসকের সংখ্যা কম থাকায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে তাদেরকে সেবা নিতে হচ্ছে। বর্তমানে কাগজে কলমে এ হাসপাতালে ১৬ জন চিকিৎসক কর্মরত হলেও আটজন চিকিৎসক এখানে যোগদান করে সংযুক্তির মাধ্যমে রাজধানী ঢাকা ও এর আশপাশের হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছেন। এ আটজন চিকিৎসক বেতনভাতা এখান থেকে উত্তোলন করলেও সেবা দিচ্ছেন অন্য হাসপাতালে। এ ছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বর্তমানে দু’জন কনসালটেন্ট, একজন মেডিক্যাল অফিসার ও দু’জন ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মেডিক্যাল অফিসারসহ পাঁচটি শূন্য পদ রয়েছে। ফলে এখানে চিকিৎসক সঙ্কট চরম আকার ধারণ করেছে।
সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা: সজিব রায়হান জানান, আউটডোরের রোগীদের পাশাপাশি হাসপাতালে ভর্তি রোগীদেরকে সেবা দিতে হয়। দিন দিন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। স্বল্পসংখ্যক চিকিৎসক দিয়ে এ সেবাদান করা খুবই কষ্টসাধ্য। ফলে রোগীরা সঠিক সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।
সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: পলাশ কুমার সাহা জানান, বর্তমানে এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যাবিশিষ্ট। ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অচিরেই কার্যক্রম শুরু হবে। হাসপাতালে পাঁচটি শূন্যপদ রয়েছে। এ ছাড়া আটজন চিকিৎসক সংযুক্তির মাধ্যমে অন্য হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছেন। ফলে ভয়াবহ চিকিৎসক সঙ্কট দেখা দিয়েছে। দ্রুত শূন্যপদগুলো পূরণ ও সংযুক্তি বাতিল করে ওই চিকিৎসকদের ফিরিয়ে আনতে পারলে রোগীরা পরিপূর্ণ সেবা পাবে বলে আশা করছি।
নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ড. মো: ইমতিয়াজ জানান, সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সঙ্কটের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আশা করি কর্তৃপ এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।


আরো সংবাদ

সেই প্রিয়া সাহা করোনায় আক্রান্ত! (৫০৮৩৩)নিজ এলাকায় ত্রাণ দিয়ে ঢাকায় ফিরে করোনায় মৃত্যু, আতঙ্কে স্থানীয়রা (৪৪৬১১)বেওয়ারিশের মতো সারা রাত সঙ্গীতশিল্পীর লাশ পড়েছিল রাস্তায় (২৬৭২১)দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (২০২৫৬)করোনা ছড়ানোয় চীনকে যে ভয়ঙ্কর শাস্তি দেয়ার দাবি উঠল জাতিসংঘে (১৬৩৮৯)কাশ্মিরে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে নিহত ভারতীয় দুর্ধর্ষ কমান্ডো দলের সব সদস্য (১৫৫২৩)রোজার ঈদের ছুটি পর্যন্ত বন্ধ হচ্ছে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (১৩০৭৯)করোনার লক্ষণ নিয়ে নিজের বাড়িতে মরে পড়ে আছে ব্যবসায়ী, এগিয়ে আসছে না কেউ (১২৮০৫)ঢাকায় নতুন করে ৯টি এলাকা লকডাউন (১০৬৪৩)সবচেয়ে ভয়াবহ দিন আজ : মৃত্যু ৫, আক্রান্ত ৪১ (১০০৬১)