২৭ অক্টোবর ২০২০

গাঁজা সেবনের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

জেসিন্ডা আরডার্ন - ছবি : সংগৃহীত

‘হ্যাঁ, অনেক আগে আমি গাঁজা সেবন করতাম। কিন্তু এখন আর করি না। দেশে গাঁজা সেবন বৈধ করার জন্য অনেকেই দাবি করছেন বহুদিন ধরে। তবে এই ব্যাপারে আমি চাই, নিউজিল্যান্ডের মানুষই সিদ্ধান্ত নিক। আমি এ নিয়ে রাজনীতি করতে চাই না।’

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন কথাগুলো বলার পর অনুষ্ঠানে উপস্থিত অনেকেই হা হয়ে গিয়েছিলেন। খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ্য সভায় স্বীকার করে নিচ্ছেন, তিনি এক সময় গাঁজা সেবন করতেন! তবে অনেকেই জেসিন্ডার সৎসাহসের প্রশংসা করেছেন। তাদের দাবি, যেটা সত্যি সেটা স্বীকার করতে অনেকেই পারে না। আর তিনি তো অপরাধমূলক কিছু করেননি।

১৭ অক্টোবর নিউজিল্যান্ডে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নিউজিল্যান্ডে গাঁজার বৈধতা নিয়েও গণভোটের আয়োজন করা হবে। জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে এদিন একটি তর্ক-বিতর্ক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন জেসিন্ডা। ন্যাশনাল পার্টির নেতা জুডিথ কলিনসের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে আধা ঘণ্টা তর্ক-বিতর্কে অংশ নেন তিনি। আর তখনই প্রসঙ্গ ওঠায় তিনি স্বীকার করেন, এক সময় গাঁজা সেবন করেছেন তিনি।

জুডিথ কলিনস অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি কোনোদিন গাঁজা সেবন করেননি। এবং নিউজিল্যান্ডে গাঁজা বৈধ করার বিপক্ষেই ভোট দেবেন তিনি। কারণ, গাঁজা সেবনে দেশের যুবসমাজের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়।

এদিকে আগামী নির্বাচনে জেসিন্ডার দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা প্রবল। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জেসিন্ডা যা করেছেন তা বিশ্বের বহু দেশের সামনে উদাহরণ সৃষ্টি করেছিল। করোনা প্রতিরোধে জেসিন্ডার একের পর এক পদক্ষেপ প্রশংসা কুড়িয়েছিল।

ন্যাশনাল পার্টির নেতা জুডিথ কলিন্সও নিউজিল্যান্ডে একজন জনপ্রিয় নেতা। ফলে নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।


আরো সংবাদ