৩১ মার্চ ২০২০

করোনার ওষুধ হাতের মুঠোয়!

করোনার ওষুধ হাতের মুঠোয়! - সংগৃহীত

করোনাভাইরাস আতঙ্কের মাঝেই চাঞ্চল্যকর দাবি করে বসলেন অস্ট্রেলিয়ার একদল গবেষক। কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই গবেষক দলের দাবি, করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক তারা খুঁজে পেয়ে গিয়েছেন। এমনকি তাদের দাবি এ-ও যে, এই মার্চের শেষ থেকেই করোনা আক্রান্তরা এই ওষুধ ব্যবহার করতে পারবেন।

মূলত অধ্যাপক ডেভিড প্যাটার্সন এবং তার দল চাঞ্চল্যকর এই দাবি করছেন। সংবাদমাধ্যমের কাছে অধ্যাপক ডেভিড প্যাটার্সন বলেন, 'করোনাভাইরাসের এই প্রতিষেধক সফল হবেই এবং দ্রুত মানুষকে সুস্থও করে তুলবে এই প্রতিষেধক।'

পাশাপাশিই গবেষক ডেভিডের আরো বক্তব্য, করোনার এই প্রতিষেধক আদতে তৈরি করা হয়েছে মূলত দুটি রোগের ওষুধের সাহায্যে। আর সেই দুটি হলো HIV ও Malaria। করোনার এই প্রতিষেধকে যে মানুষ সুস্থ হবেন শিগগিরই, সে বিষয়েও আত্মপ্রত্যয়ের সুর শোনা গেল ডেভিড প্যাটার্সনের গলায়।

যদিও এর আগে আশার আলো দেখিয়েছেন একদল কানাডিয়ান বিজ্ঞানী। আর সেই দলে রয়েছেন বাঙালি বিজ্ঞানী অরিঞ্জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ভারতীয় বংশোদ্ভূত বাঙালি বিজ্ঞানী অরিঞ্জয়ের দাবি, তারা কিছুটা হলেও এই ভাইরাসকে রুখে দেয়ার উপায় বের করে ফেলেছেন। শেষ মুহূর্তের গবেষণা চলছে। তাতে সাফল্য মিললেই বিশ্বজুড়ে রোখা যাবে এই মারণ রোগ। কানাডার তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা মনে করছেন, তাদের পরীক্ষা করোনাভাইরাসকে রুখে দিতে পারবে।

এ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়াতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৫০ জন মানুষ। চীনে করোনা মহামারী ক্রমশ নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করলেও বিশ্বেজুড়ে বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। বর্তমানে বিশ্বের ১৫৭টি দেশে এই রোগ ছড়িয়েছে। সর্বশেষ পাওয়া পরিসংখ্যান অনুসারে, বর্তমানে বিশ্বের ১৬০টি দেশে এই রোগ ছড়িয়েছে। মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৭৪,১৩৪ জন। এর মধ্যে ৭৭,৮৬৬ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে গিয়েছেন। চিকিৎসা চলছে ৮৫,৭৭৬ জনের। আর এই ভাইরাসের থাবার মৃত্যু হয়েছে ৬৬৮৪ জনের।
সূত্র : এই সময়


আরো সংবাদ