১৭ আগস্ট ২০২২
`

টোকিও অলিম্পিকে ফিলিস্তিনের প্রতিনিধিত্ব করতে চান গাজার ইনাস

ইনাস নোফেল - ছবি সংগৃহীত

২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিকের ওপর দৃষ্টি রাখছেন সমগ্র বিশ্বের তরুণ অ্যাথলেটরা। তারা তাদের সময় ও শ্রম ব্যয় করছেন তাদের স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করতে। এ ব্যাপারটা ইনাস নোফেলের থেকে খুব কম মানুষই বুঝতে পারবেন।

১৫ বছর বয়সী এ দৌড়বিদ তার খেলার প্রতি খুবই আন্তরিক। খেলার প্রতি তার এ প্রবল আগ্রহ তাকে শুধু সামনে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে না, এটা অন্যদের জন্যও প্রেরণার।

এ তরুণ খেলোয়াড় বলেন, ‘দৌড়ানো আমার দৈনন্দিন রুটিনের একটি অংশ। আমার লক্ষ্য আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ফিলিস্তিনকে প্রতিনিধিত্ব করা।’

তিনি এ খেলার মাধ্যমে অনেক দূর যেতে চান। তিনি এ বিষয়ে বলেন, ‘আমার প্রতিভার বিকাশের জন্য আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, যাতে করে আমি আমার ভবিষ্যতের দৌড় প্রতিযোগিতার (অলিম্পিক দৌড়) জন্য যোগ্য হয়ে উঠি। আমি সম্ভবত এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবো।’

ইনাস নোফেল তার প্রাকটিস শুরু করেন খুব সকালে। এ সময় তিনি গাজার কেন্দ্র স্থলে অবস্থিত মাগহাজি শরণার্থী ক্যাম্পের রাস্তাগুলোতে দৌড়াতে শুরু করেন। প্রাকটিসের অধিকাংশ সময় তিনি সাথী হিসেবে পান সামি আল নাটিলকে। সামি একজন সাবেক অ্যাথলেট, এখন তিনি তার সময় ব্যয় করছেন প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ খেলোয়াড়দের শেখাতে এবং তাদের যোগ্যতা ফুটিয়ে তুলতে।

সামি আল নাটিল খুব দক্ষ দৌড়বিদ। তিনি বলেন, ‘আমি চাই গাজার প্রত্যেক মানুষ এ বিষয়টি উপলদ্ধি করুক যে দৌড়ানো স্বাস্থ্য ও মনের ভার হালকা করার জন্য খুবই কার্যকর। তিনি মূলত এ ব্যাপারটা বুঝাতে চাচ্ছেন যে দৌড়ানো শুধু একটি খেলা নয়, এটা জীবন যাপনের জন্য একটি আলাদা পথও বটে।

সামি আল নাটিলও গাজার তরুণী ইনাস নোফেলের প্রচেষ্টা ও সাহসিকতায় মুগ্ধ। দৌড়বিদের কোচ সামি আল নাটিল জোর দিয়ে বলেন, সম্ভবত গাজার প্রত্যেকটি মানুষ ইনাস নোফেলের উদাহরণ থেকে উপকৃত হবেন।

সূত্র : গাজা পোস্ট


আরো সংবাদ


premium cement