০৯ মে ২০২১
`

শেষ দিনে ভারোত্তোলনে ৯ রেকর্ড

শেষ দিনে ভারোত্তোলনে ৯ রেকর্ড -

বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন (বিওএ) আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস’ ভারোত্তোলন শেষ দিনে শুক্রবার নারী বিভাগে চার ও পুরুষ বিভাগে পাঁচ রেকর্ড হয়েছে।

নারীদের ৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচ, ক্লিন এন্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তানিয়া খাতুন। নারীদের উর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ আনসারের সোয়াইবা রোকাইয়া।

পুরুষদের উর্ধ্ব-১০৯ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচ, ক্লিন এন্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফরহাদ আলী। ১০৯ কেজি ওজন বিভাগের ক্লিন এন্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন সেনাবাহিনীর আব্দুল্লাহ আল মোমিন।

ভারোত্তোলনের ২০ ইভেন্টে সমান, ১০টি করে সোনা জিতেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বাংলাদেশ আনসার।

৮৭ কেজি ওজন শ্রেণীতে তিন ক্যাটাগরিতে রেকর্ড গড়ে সোনা জয়ের পথে স্ন্যাচে ৬২, ক্লিন এন্ড জার্কে ৭৬, মোট ১৩৮ কেজি তুলেছেন তানিয়া খাতুন। রুপা জয়ী বাংলাদেশ জেলের সাকেরা খাতুন স্ন্যাচে ৫৩, ক্লিন এন্ড জার্কে ৬৩, মোট ১১৬ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ী বাংলাদেশ আনসারের মিঞ্জু আক্তার স্ন্যাচে ৫১, ক্লিন এন্ড জার্কে ৬৪, মোট ১১৫ কেজি তুলেছেন।

নারীদের উর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নাজনীন আক্তার মুন্নি স্ন্যাচে ৫৭, ক্লিন এন্ড জার্কে ৭২, মোট ১২৯ কেজি তুলেছেন। বাংলাদেশ আনসারের সোয়াইবা রহমান রাফা স্ন্যাচে রেকর্ড ৫৭ কেজি, ক্লিন এন্ড জার্কে ৭১, মোট ১২৮ কেজি তুলে রুপা জিতেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে বাংলাদেশ জেলের মার্জিয়া আক্তার স্ন্যাচে ৫৪, ক্লিন এন্ড জার্কে ৫৫, মোট ১০৯ কেজি তুলেছেন।

পুরুষদের উর্ধ্ব-১০৯ কেজি ওজন বিভাগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফরহাদ আলী তিন ক্যাটাগরিতে রেকর্ড গড়ার পথে স্ন্যাচে ১২১, ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪৭, মোট ২৬৭ কেজি তুলেছেন। রুপা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের তায়েফুর রহমান স্ন্যাচে ১১০, ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪০, মোট ২৫০ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে একই দলের সুদীপ্ত দাস স্ন্যাচে ১০০, ক্লিন এন্ড জার্কে ১৩৮, মোট ২৩৮ কেজি তুলেছেন।

১০৯ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আব্দুল্লাহ আল মোমিন স্ন্যাচে ১১৪, ক্লিন এন্ড জার্কে রেকর্ড ১৫১, মোট ওজনে রেকর্ড ২৬৫ কেজি তুলেছেন। রুপা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের এমরান হোসেন স্ন্যাচে ১১৪, ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪৫, মোট ২৫৯ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-এর মোজাহিদ ফকির স্ন্যাচে ৯৬, ক্লিন এন্ড জার্কে ১২৫, মোট ২২১ কেজি তুলেছেন।

ভোরোত্তোলনের খেলা শেষে বাংলাদেশ আনসারের কোচ বিদ্যুৎ কুমার রায় বলেছেন, ‘বাংলাদেশ আনসার ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খেলোয়াড়রা সমান সুযোগ-সুবিধাই পান। এ আসরে বাংলাদেশ আনসারের খেলোয়াড়রা প্রত্যাশার চেয়ে ভাল করেছেন। তার কারন টানা অনুশীলন। বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সহায়তায় আমাদের খেলোয়াড়রা বছর জুড়েই অনুশীলনের মধ্যে থাকেন। ভারোত্তোলনে ভাল করতে হলে অনুশীলনের বিকল্প নেই।’



আরো সংবাদ