২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

দুই বছর পর শুরু থাইল্যান্ডের 'বাঁদর উৎসব'

থাইল্যান্ডের লপবুরিতে বাঁদর উৎসবে ফল খাচ্ছে তিন বাঁদর - ছবি : রয়টার্স

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দুই বছর বন্ধ থাকার পর থাইল্যান্ডের লপবুরি প্রদেশে আবার শুরু হয়েছে 'বাঁদর উৎসব'। রোববার আয়োজিত বার্ষিক এই উৎসবে স্থানীয়দের সরবরাহ করা প্রায় দুই টন ফল ও সবজি সাবাড় করার জন্য কয়েক হাজার বাঁদর জমা হয়েছে।

স্থানীয় ও পর্যটকরাও উৎসবে বাঁদরের 'বাঁদরামি' দেখার জন্য ভিড় করেছেন উৎসবে।

মধ্য থাইল্যান্ডের লপবুরি প্রদেশে পর্যটন আকর্ষণের জন্য বাঁদরের প্রতি কৃতজ্ঞতায় স্থানীয়রা প্রতি বছরই এই উৎসব পালন করে আসছে। প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে বিচিত্র রকমের বিপুল বাঁদরের উপস্থিতির কারণে প্রদেশটিকে 'বাঁদরের প্রদেশ' বলেও ডাকা হয়।

উৎসবে ফল সাবাড় করছে এক পাল বাঁদর- ছবি : রয়টার্স

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দুই বছর এই উৎসবের আয়োজন বন্ধ ছিলো।

উৎসবের আয়োজক ইংগুথ কিটওয়াটানানুসন্ট বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, 'আজকের বিশেষ আয়োজন ডুরিয়ান (বিশেষ এক থাই ফল), যা ব্যয়বহুল। লপবুরির বাঁদররা ব্যয়বহুল জিনিস পছন্দ করে।'

বাঁদর উৎসবে শিশু নিয়ে এক মা বাঁদর- ছবি : ব্যাংকক পোস্ট

ইংগুথ এর আগে আরো ৩০টি বাঁদর উৎসবের আয়োজন করেছিলেন।

এই বছর উৎসবের থিম হুইলচেয়ারের বাঁদর। ইংগুথ পরিকল্পনা করছেন সুবিধাবঞ্চিত এক শ' লোককে তিনি হুইলচেয়ার দেবেন।

উৎসবে জমা হওয়া এক পাল বাঁদর ফল সাবাড় করছে- ছবি : রয়টার্স

 

বাঁদর উৎসবে আসা মরক্কোর পর্যটক আইয়ুব বুখারি বলেন, 'আমি সত্যিই আনন্দিত এটি দেখতে পেয়ে এবং পরবর্তী উৎসবে যোগ দেয়ার জন্য আমি চিন্তা করছি।'

তিনি বলেন, 'এটি অবিশ্বাস্য এবং বাঁদরগুলোও দুষ্ট।'

কিছু পর্যটককে বাঁদরের সাথে খেলতে দেখা যায়। অনেককেই ক্যামেরা নিয়ে ছবি তুলতে দেখা যায়।

উৎসবে আসা থান্ডিয়া পুদজিব বলেন, 'এটি দুই বছরের মধ্যে প্রথম যে বাঁদরগুলো সব ধরনের ফল ও সবজি খাওয়ার সুযোগ পেয়েছে। আমি তাদের জন্য সুখী।'

বাঁদরের সাথে খেলা করছেন পর্যটকরা- ছবি : রয়টার্স

এর আগে নভেম্বরের শুরুতে করোনাভাইরাস সংক্রমণে টিকা দেয়া সাপেক্ষে পর্যটকদের জন্য কোয়ারেন্টিন ছাড়াই থাইল্যান্ডে ভ্রমণের জন্য খুলে দেয়ার পর থেকেই দেশটিতে ধীরে ধীরে পর্যটকরা ফিরে আসছে।

নভেম্বরেই মোট এক লাখের বেশি পর্যটক দেশটিতে ভ্রমণ করেছে বলে থাই কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সূত্র : রয়টার্স


আরো সংবাদ


premium cement